বগুড়ায় ভার্চুয়াল আদালত বর্জন করলেন আইনজীবীরা

প্রকাশ: ১৩ মে ২০২০   

বগুড়া ব্যুরো

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বগুড়ার আইনজীবীরা ভার্চুয়াল বা তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে বিচার কার্যক্রমে অংশ নিতে রাজি নন। তারা এ আদালত বর্জনেরও ঘোষণা দিয়েছেন। বুধবার দুপুরে বগুড়া জেলা অ্যাডভোকেটস্ বার সমিতির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। 

ওই সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম জানান, সংখ্যাগরিষ্ঠ আইনজীবীর উপস্থিতিতে নেওয়া এ সিদ্ধান্তের কথা আদালতকেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সুপ্রিম কোর্টের সুপারিশক্রমে সরকারের পক্ষ থেকে আইনজীবীদের সশরীরে আদালতে উপস্থিত না হয়ে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বিচার কাজে অংশগ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি করা হয়। সারাদেশের মতো বগুড়ার আদালতগুলোতেও তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর বিচার কার্যক্রম শুরুর উদ্যোগ নেওয়া হয়। এ জন্য গত ১১ মে একটি অফিস আদেশও জারি করা হয়। তাতে বলা হয়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত অনলাইনে প্রাপ্ত জামিন আবেদন ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হবে। 

বগুড়ার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জারি করা ওই আদেশে বলা হয়, আদালতে শুধু বেঞ্চ সহকারী ও অন্যান্য কর্মচারী উপস্থিত থাকবেন। সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, বুধবার থেকে ভার্চুয়াল আদালতের কার্যক্রম শুরু করার কথা ছিল। কিন্তু আইনজীবীদের আগ্রহ না থাকায় তা আর হয়নি।

বগুড়া জেলা অ্যাডভোকেটস্ বার সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম জানান, জেলার অধিকাংশ আইনজীবী তথ্যপ্রযুক্তি সম্পর্কে ধারণা রাখেন না। যে কারণে তাদের পক্ষে সশরীরে হাজির না হয়ে ভার্চুয়াল প্রক্রিয়ায় আদালতের কার্যক্রমে অংশ নেওয়া সম্ভব নয়। তিনি বলেন, আইনজীবীদের কাছ থেকে এ ধরনের বক্তব্য পাওয়ার পর বুধবার দুপুরে সমিতির পক্ষ থেকে জরুরি সভা আহবান করা হয়। সেখানে প্রায় দুইশ আইনজীবী অংশ নেন এবং তারা সবাই ভার্চুয়াল আদালতের কার্যক্রমে অংশগ্রহণ না করার ব্যাপারে মত দেন। বিষয়টি এরই মধ্যে আদালতকে জানানো হয়েছে।