আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে নড়াইলের কালিয়ায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। এ সময় ২০টি বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। আহতদের কালিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার কলাবাড়িয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, কলাবাড়িয়া ইউপির আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান মাহামুদুল হাসান কায়েস সমর্থিত মুরসালিন মোল্যা গ্রুপ ও উপজেলার নড়াগাতি থানা কৃষক লীগের সভাপতি হাসনাত মোল্যা গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। শনিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে মুরসালিন গ্রুপের লোকজন হাসনাতের চাচাতো ভাই বিলায়েত মোল্যা (৪০) ও তকির মোল্যাকে (৩৫) পিটিয়ে এবং কুপিয়ে আহত করলে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে চলা সংঘর্ষে নারীসহ উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হন। আহতদের কালিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

নড়াগাতি থানার ওসি রোকসানা খাতুন বলেন, সংঘর্ষ ও ভাংচুরের সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।