সাতক্ষীরার শ্যামবাজারে প্রথমবারে মতো একজনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। ২৮ বছর বয়সী ওই যুবকের বাড়ি ঈশ্বরীপুর ইউনিয়নের গোমানতলী গ্রামে। সম্প্রতি তিনি ঢাকা থেকে বাড়িতে আসেন। এ ঘটনায় আক্রান্তের বাড়িসহ তার শ্বশুড়বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আ ন ম আবুজর গিফারী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত নিশ্চিত করেছেন।

আক্রান্তের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, করোনা আক্রান্ত ওই যুবক ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছেন। গত ১৭ মে তিনি স্ত্রীসহ চারজনকে নিয়ে ঢাকা থেকে শ্যামনগরের গোমানতলীতে নিজ বাড়িতে বেড়াতে আসেন। শরীরে মৃদু জ্বরের উপসর্গ থাকায় পরিবারের পরামর্শে তিনি করোনা পরীক্ষার সিদ্ধান্ত নেন। ১৯ মে তার নমুনা সংগ্রহ করে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্ষের নির্দিষ্ট টিমের সদস্যরা। ২৩ মে নমুনা পরীক্ষার ফল করোনা পজিটিভ আসে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আ ন ম আবুজর গিফারী জানান, করোনা শনাক্তের পর ঢাকাফেরত ওই যুবকের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। এছাড়া আক্রান্ত যুবক শ্বশুড়বাড়ি মাহমুদপুরে অবস্থান করায় সেই বাড়িটিও লকডাউন করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, তার সংস্পর্শে আসা পরিবারের সদস্যদের নমুনা সংগ্রহ করা হবে। তবে আক্রান্ত যুবক তাদের সঙ্গে ঢাকা থেকে আসা অন্য সহযাত্রীদের নাম ও পরিচয় জানাতে পারেননি বলেও জানান তিনি।
করোনা আক্রান্ত যুবকের শ্বশুর আব্দুর রশিদ জানান,  তার মেয়ে ও জামাইয়ের নমুনা পরীক্ষা করা হলেও শুধুমাত্র জামাইয়ের পজেটিভ এসেছে।