নাটোরে এক ব্যক্তিকে বিদ্যুতায়িত করে হত্যার অভিযোগ

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২০   

নাটোর প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নাটোরের লালপুরে প্রতিবেশীর বাড়িতে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে মিজানুর রহমান (৪০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। ওই প্রতিবেশীর ছাগলের জন্য কাঁঠালের পাতা পাড়তে গিয়ে মিজান বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায়। তবে নিহতের পরিবারের অভিযোগ- মিজানকে বিদ্যুতায়িত করে হত্যা করা হয়েছে।

রোববার উপজেলার নুরুল্লাপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আজিজুল হক বাদী হয়ে প্রতিবেশী লোকমান হোসেন ঝন্টুর নামে লালপুর থানায় মামলা করেছেন। এতে পুলিশ তাকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করেছে।

নিহত মিজান উপজেলার নুরুল্লাপুর গ্রামের বালুঘাট এলাকার মাহাতাব মন্ডলের ছেলে। আটককৃত লোকমান হোসেন ঝন্টু একই এলাকার আসমত সরকারের ছেলে। লালপুর থানার ওসি সেলিম রেজা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, রোববার সকালে প্রতিবেশী লোকমান হোসেন ঝন্টুর কাছে কাজের পাওনা ৫ হাজার টাকা চাইতে যায় মিজান। এ সময় ঝন্টু তার ছাগলের জন্য মিজানকে কাঁঠাল গাছে উঠে পাতা পাড়তে বলেন। ঝন্টুর কথায় মিজান কাঁঠাল গাছের পাতা পাড়তে গাছে ওঠে। পাতা পাড়ার সময় গাছের ওপর দিয়ে যাওয়া বিদ্যুতের তারের সঙ্গে মিজানের হাত স্পর্শ হলে গাছের ডালে আটকে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মিজান মারা যায়। খবর পেয়ে লালপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে কাঠাল গাছে আটকে থাকা মিজানের মৃতদেহ উদ্ধার করে।

লালপুর ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার রুহুল আমিন জানান, নিহত ব্যক্তি বিদ্যুতায়িত হয়ে ওই গাছের দুই ডালে আটকে ছিলেন।

লালপুর থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, খবর পেয়ে লালপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মৃতদেহ উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আজিজুল হক বাদী হয়ে লোকমান হোসেন ঝন্টুর নামে লালপুর থানায় মামলা করেছে। পরে মামলার আসামী ঝন্টুকে আটক করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।