সোনারগাঁয়ে করোনার উপসর্গ নিয়ে নারীসহ ৩ জনের মৃত্যু

প্রকাশ: ০২ জুন ২০২০   

সোনারগাঁ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের দুই ইউনিয়নে করোনা উপসর্গ নিয়ে নারীসহ ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতে ও মঙ্গলবার সকাল-দুপুরে তাদের মৃত্যু হয়।

তবে এদের তিন'জনের মধ্যে দুই জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। কিন্তু রিপোর্ট এখনও আসেনি। বাকি অপরজনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি বলে জানা যায়।

এলাকাবাসী জানান, উপজেলা বারদী ইউনিয়নে দৈলেরদী গ্রামের মৃত আসন আলীর ছেলে মুকবুল হোসেন (৪০) গত কয়েকদিন ধরে ঠান্ডা, জ্বর ও কাশিতে ভুগছিলেন। সে জন্য তিনি করোনার নমুনা পরীক্ষা করেন। কিন্তু রিপোর্ট এখনো আসেনি। মঙ্গলবার দুপুরে তার শ্বাসকষ্ট বেড়ে গিয়ে তিনি মারা যান।

অপরদিকে, বারদী ৯নং ওয়ার্ডের বড় আলমদী গ্রামের মৃত মাহাব্বত আলীর ছেলে আবুল বাশার (৬৫) জ্বর, ঠান্ডা ও কাশিতে ভুগছিলেন। মঙ্গলবার সকালে তিনিও শ্বাসকষ্ট বেড়ে গিয়ে মৃত্যু বরণ করেন। তবে তার করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়নি।

এদিকে মোগরাপাড়া ইউনিয়নের বাড়ী চিনিষ গ্রামে করোনার উপসর্গ নিয়ে আবেদুন নেছার (৬৫) মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতে তিনি বাড়ী চিনিষ গ্রামে তার নিজ বাড়িতে মারা যান। পরে এলাকাবাসীর সহায়তা লাশ দাফন সম্পন্ন করেন। এর আগে বড় মেয়ে নারগিস আক্তার গত ১৬ মে করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান। মৃত্যুর পর তার নমুনা পরীক্ষা করে করোনা শনাক্ত হয়।

নারগিছের মৃত্যুর পর তার মা আবেদুন নেছার করোনা ভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। সেখানে তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর গত কয়েকদিন যাবত তার করোনার উপসর্গ দেখা দিলে গত ২ দিন আগে ফের তার করোনার নমুনা পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে দিয়ে আসেন। রিপোর্ট না আসতেই সোমবার রাতে তিনি  মারা যান।

সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. পলাশ কুমার সাহা বলেন, তিনজনের মধ্যে দুজনের করোনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের রিপোর্ট হাতে আসলে করোনার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।  তবে আবুল বাশারের সংস্পর্শে আসা সবাইকে হোম কোয়ারান্টাইনে পাঠানো হবে। তাদের করোনা পরীক্ষা করা হবে।