দীঘিনালার দুর্গম গ্রামে কাঁধে করে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দিলেন সেনা সদস্যরা

প্রকাশ: ২২ জুন ২০২০   

দীঘিনালা (খাগড়াছ) প্রতিনিধি

কাঁধে করে ত্রাণসামগ্রী নিয়ে যাচ্ছেন সেনা সদস্যরা -সমকাল

কাঁধে করে ত্রাণসামগ্রী নিয়ে যাচ্ছেন সেনা সদস্যরা -সমকাল

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া চার শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেছে সেনাবাহিনী। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় দীঘিনালা সেনাজোনের পক্ষ থেকে উপজেলার পূর্ব বেতছড়ি, পাকুজ্যাছড়ি, নৌকাছড়া, তারাবনিয়া ও সীমানাপাড়া এলাকায় এসব ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

প্রথমে পুর্ব বেতছড়ি সংলগ্ন মাইনী নদীর পাড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে খোলা মাঠে শতাধিক পরিবারের হাতে ত্রাণসামগ্রী তুলে দেওয়া হয়। পরে ত্রাণ বিতরণের দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ সাকিব হোসেনের নেতৃত্বে একদল সেনা সদস্য দুর্গম পাকুজ্যাছড়িসহ বিভিন্ন পাহাড়ি গ্রামে কাঁধে করে বাড়ি বাড়ি ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেন। এসব সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে, চাল, ডাল, আটা, লবণ, চিনি, সুজি, সেমাই, নুডুলস ও গুঁড়োদুধসহ নিত্য প্রয়োজনীয় শিশু খাদ্য।

বাড়িতে ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেওয়ায় খুশি দুর্গম পাকুজ্যাছড়ি গ্রামের উত্তম কুমার চাকমা ও পরানী চাকমা। তারা জানান, করোনাভাইরাসের কারণে কোনো কাজকর্ম করতে পারছি না। তাই পরিবার পরিজন নিয়ে সীমাহীন কষ্টে দিন কাটাতে হচ্ছে। এ অবস্থায় মানবিক সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে শিশু খাদ্যসহ বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়ায় গ্রামের সকলেই খুব খুশি।

দীঘিনালা সেনাজোনের ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনায় দায়িত্বপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ সাকিব হোসেন জানান, বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি সাধারণ মানুষের খাদ্যসঙ্কট মোকাবিলায় সেনা প্রধানের নির্দেশক্রমে খাগড়াছড়ি রিজিয়নের সহযোগিতায় দীঘিনালা জোনের পক্ষ থেকে আমরা ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। তারই ধারাবাহিকতায় দুর্গম পাকুজ্যাছড়িসহ বিভিন্ন পাহাড়ি গ্রামের চার শতাধিক অসহায় পরিবারের বাড়ি বাড়ি ত্রাণসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। আগামী দিনগুলোতেও অসহায় মানুষের খাদ্য সহায়তায় সেনাবাহিনীর ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।