বরগুনার আমতলীতে করোনার উপসর্গ নিয়ে কুদ্দুস মোল্লা (৭০) নামে এক শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার রাতে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মৃত কুদ্দুস মোল্লা উপজেলার নাচনা পাড়া গ্রামের মহিষ ডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত সহকারী শিক্ষক ছিলেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কয়েকদিন ধরে কুদ্দুস মোল্লার জ্বর, কাশি এবং শ্বাস কষ্ট থাকায় বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। বুধবার সকালে তার ডায়রিয়ার শুরু হলে শ্বাস কষ্ট বেড়ে যায়। পরে স্বজনরা তাকে আমতলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানে করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার দিবাগত রাত ২টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। 

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পন কর্মকর্তা ডা. মংকর প্রসাদ অধিকারী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আমতলী হাসপাতালে যখন ওই শিক্ষককে আনা হয় তখন তার অবস্থা খুব খারাপ ছিল। অক্সিজেনের মাত্রা ছিল ৩০। তার শরীরে করোনার উপসর্গও ছিল। এ কারণে  তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

তিনি আরো জানান, মৃত ওই ব্যক্তির শরীরে করোনার উপসর্গ থাকায় স্বাস্থ্য বিধি মেনে মরদেহ দাফন করা হবে।