গাইবান্ধায় করতোয়া নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০২০   

গাইবান্ধা প্রতিনিধি

গাইবান্ধায় ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘট নদীর পানি থমকে আছে। তবে করতোয়া নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ৯ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্রের পানি স্থির থেকে তিস্তামুখঘাট পয়েন্টে বর্তমানে বিপদসীমার ১১৮ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। 

অপরদিকে ঘাঘট নদীর পানি গাইবান্ধা শহর পয়েন্টে সকাল ৬টা থেকে বিকাল ৩টা পর্যন্ত ৯ ঘন্টায় অপরিবর্তিত থেকে বর্তমানে বিপদসীমার ৯৩ সে.মি. উপর দিয়ে বইছে। 

এদিকে করতোয়া নদীর পানি গত ৯ ঘণ্টায় গোবিন্দগঞ্জের কাটাখালি পয়েন্টে ৩৫ সে.মি. বৃদ্ধি পেয়ে এখন বিপদসীমার ১০ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে এদিকে ব্রহ্মপুত্র ও ঘাঘট নদীর পানি স্থিতিশীল থাকায় জনদুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। বন্যা কবলিত বিশুদ্ধ পানি ও গো-খাদ্যের মারাত্মক সংকট দেখা দিয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। দিনমজুররা কর্মহীন হয়ে পড়ায় চরম দুর্দমার মধ্যে দিন কাটাচ্ছে। 

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বন্যা কবলিত সুন্দরগঞ্জ, সাঘাটা, ফুলছড়ি ও সদর উপজেলার ২৬টি ইউনিয়নে ১ লাখ ৩০ হাজার মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে বিতরণের জন্য ২১০ মেট্রিক টন চাল ও সাড়ে ১৯ লাখ টাকা সাহায্য হিসেবে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। এছাড়া গো খাদ্য ও শিশু খাদ্যের জন্য পৃথকভাবে ৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়েছে। এসব বরাদ্দকৃত চাল ও নগদ অর্থ বিতরণের কাজ চলছে।