ধনবাড়ীতে আ’লীগ নেতা খুনের ঘটনায় অবশেষে মামলা, তিনজন গ্রেফতার

প্রকাশ: ০৩ আগস্ট ২০২০   

মধুপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

 নিহত আমিনুল ইসলাম তালুকদার নিক্সন

নিহত আমিনুল ইসলাম তালুকদার নিক্সন

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে আওয়ামী লীগ নেতা কলেজ শিক্ষক আমিনুল ইসলাম তালুকদার নিক্সন খুনের তিনদিন পর অবশেষে মামলা হয়েছে। ছোট ভাই মামুন তালুকদার বাদী হয়ে ৫ জনের নাম উল্লেখ ও আরও ৪/৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে রোববার গভীর রাতে ধনবাড়ী থানায় মামলা করেছেন। পরে পুলিশ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে।

নিহতের স্বজনরা জানান, ঘটনার পরপর হাসপাতালে আহত আমিনুল ইসলাম নিক্সনের অবস্থার খবর নিতে এসে আটক হওয়া ফারুক নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে প্রাপ্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের ভিত্তিতে মধুপুর, ধনবাড়ী ও গোপালপুর থানা পুলিশের পৃথক যৌথ অভিযানে বাকি দুইজন গ্রেফতার হয়েছেন। তারা হলেন- গোপালপুরের হাদিরা ইউনিয়নের বন্দ আজগড়া গ্রামের মৃত শের আলীর ছেলে সুমন, বেতাল আজগড়া গ্রামের বাদশা মিয়ার ছেলে সুজন ও আব্দুল আজিজের ছেলে ফারুক।

তারা আরও জানান, ঈদের আগের রাতে গ্রামের বাড়ি গোপালপুরের আজগড়া থেকে ধনবাড়ীর বাসায় ফেরার পথে কলেজ শিক্ষক আ’লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম নিক্সন আজগড়া খালের ব্রিজের অদূরে দুর্বৃত্তদের হামলার শিকার হন। তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হওয়া নিক্সনকে উদ্ধার করে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে মারা যান তিনি। হাসপাতালে স্বজন ও দর্শনার্থীদের সঙ্গে ফারুকও যান। 

নিহত আমিনুল ইসলাম নিক্সন গোপালপুরের হাদিরা ইউনিয়নের আজগড়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক আলাউদ্দিন তালুকদার ওরফে তারা মিয়ার ছেলে। টাঙ্গাইলের লায়ন নজরুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক আমিনুল ইসলাম নিক্সন গোপালপুর উপজেলার হাদিরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক। ধনবাড়ীর রান ডেভেলপমেন্ট উন্নয়ন সংগঠনের ভাইস প্রেসিডেন্ট। তিনি সপরিবারে ধনবাড়ী উপজেলা শহরে বাস করতেন।

ধনবাড়ী থানার ওসি চানমিয়া বলেন, গত রাত (রোববার) দুইটার পর মামলা হয়েছে। অভিযান চালিয়ে মামলায় উল্লেখ আসামি ৫ জনের তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।