করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল গণি (৭০)। শুক্রবার ভোরে রাজধানীর স্পেশালাইজড হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

মৃত্যুর আগে তার নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্ট পজিটিভ আসে বলে জানান আব্দুল গণির ছেলে আব্দুর রাজ্জাক রনি। দেবহাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরিনও ফেসবুক পোস্টে আব্দুল গণির মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

আব্দুল গণির ছেলে রনি জানান, কিছুদিন ধরে জ্বরসহ করোনার উপসর্গ দেখা দিলে বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন তিনি। পরে শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে সোমবার উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে রাজধানীর স্পেশালাইজড হাসপাতালে নিয়ে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। ওই দিনই করোনা পরীক্ষার জন্য তার নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়। বৃহষ্পতিবার তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্টে পজিটিভ আসে। শুক্রবার ভোর রাতে তিনি মারা যান। ইতিমধ্যে তার মরদেহ নিয়ে পরিবারের সদস্যরা গ্রামের বাড়ি দেবহাটা উপজেলার চাঁদপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন এবং বাদ মাগরিব তার জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আলহাজ্ব আব্দুল গণি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক শিল্প-বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন। পরপর টানা দু’বার তিনি দেবহাটা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

এদিকে, আব্দুল গণির মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও সাতক্ষীরা-৩ আসনের সাংসদ অধ্যাপক ডা. আ.ফ.ম রুহুল হক এমপি, জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তা কামাল, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক সাংসদ মুনসুর আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম।