চুয়াডাঙ্গায় করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) উপসর্গ নিয়ে হালিমা খাতুন (৭০) ও শামিম হোসেন (২৮) নামে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার ভোরে হালিমা খাতুন ও সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে শামিম হোসেন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের হলুদ জোনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের মুন্সিপাড়ার মৃত দাউদ হোসেনর স্ত্রী হালিমা খাতুন ও জেলার দামুড়হুদা উপজেলার ডুগডুগি গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে শামিম হোসেন বেশ কয়েকদিন ধরে সর্দি, কাশি ও জ্বরে ভুগছিলেন।

সোমবার দুপুরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. শামিম কবির এ সব তথ্য জানান।

ডা. শামিম জানান, হালিমা খাতুনের রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শ্বাসকষ্ট বাড়লে তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন পরিবারের সদস্যরা। সোমবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। অপরদিকে, শামিম হোসেন জ্বর, ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন বেশ কয়েকদিন ধরে। সোমবার সকাল ১০টার দিকে তার শ্বাসকষ্ট বাড়লে পরিবারের সদস্যরা তাকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভর্তির আধাঘন্টা পরে মারা যান তিনি।

ডা. শামিম কবির বলেন, করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া হালিমা ও শামিম হোসেনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। নমুনা পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হবে। স্বাস্থ্য বিধি মেনে তাদের মরদেহ দাফনের বিষয়টিও নিশ্চিত করা হবে।