নাটোরে ‘৯৯৯’ ফোনে রক্ষা পেয়েছে ৪০ জীবন

প্রকাশ: ২৭ আগস্ট ২০২০     আপডেট: ২৭ আগস্ট ২০২০   

নাটোর প্রতিনিধি

চলনবিলে যাত্রীসহ পথ হারানো নৌকা- সমকাল

চলনবিলে যাত্রীসহ পথ হারানো নৌকা- সমকাল

‘৯৯৯’ এ ফোন পেয়ে নাটোরের পুলিশ চলনবিলে নৌকা ভ্রমণে আসা ৫ শিশু ও ১২ নারীসহ ৪০ জনের জীবন রক্ষা করেছে। 

বুধবার রাত দেড়টার দিকে ৯৯৯ এ ফোন কল পাওয়ার পর পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহার নেতৃত্বে জেলার পুলিশের ৫টি টিম চলনবিলে প্রায় ৩ ঘণ্টা অনুসন্ধান চালিয়ে ৪০ যাত্রীসহ পথ হারানো নৌকাটি খুঁজে পান। 

৯৯৯ নম্বরে ফোন কল দেওয়া ওই নৌকার যাত্রী পিয়াস সরকার জানান, তারা নওগাঁর আত্রাই থেকে ৪০ জনের একটি দল তিশীখালী মাজার পরিদর্শনসহ ভ্রমণের জন্য একটি নৌকা নিয়ে চলনবিলে আসেন। চলনবিলের তাড়াশ ও গুরুদাসপুরের বিলসা বেড়ানো শেষে সন্ধ্যা ৬ টার দিকে সিংড়ার তিশীখালী মাজারে যান তারা। সেখান থেকে রাত আনুমানিক ১০ টার দিকে আত্রাইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা হন। কিন্তু প্রায় ৩ ঘণ্টা পথ অতিক্রম করার পরও গন্তব্যে পৌঁছাতে না পারায় বুঝতে পারেন তারা পথ হারিয়েছেন। এ সময় আবহাওয়া ছিল কিছুটা উত্তাল। চারিদিকে কোন বাড়ি ঘর চোখে পড়ছিল না। কোন আলোর দেখা মিলছিল না। নৌকার মাঝিও বুঝতে পারছিল না তার অবস্থান এখন কোথায়। 

নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, সিংড়া থানার অফিসার ইনচার্জ পথ হারানো নৌকার এক যাত্রীর করা ৯৯৯ এ ফোন কল পান। ওই যাত্রীর কাছে নৌকার অবস্থান জানতে চাইলে তিনি কিছুই বলতে পারেন না। আধুনিক প্রযুক্তি ও এলআইসি, ঢাকার সহায়তায় কলকৃত ব্যক্তির অবস্থান জানা যায় সিংড়া উপজেলার বিলদহর এলাকায়। 

পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেন, উদ্ধারের পর তাদের আত্রাই সীমান্ত এলাকায় পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।