চাঁদা না পেয়ে পাবনায় ঠিকাদারকে মারপিট, ছাত্রলীগ নেতা আটক

প্রকাশ: ২৯ আগস্ট ২০২০   

পাবনা অফিস

হাসিবুল খান ছানা

হাসিবুল খান ছানা

সরকারি উন্নয়ন কাজে বাধা প্রদান এবং চাঁদা না দেওয়ায় ওই কাজের ঠিকাদারকে মারপিট করার অভিযোগে পাবনার সাঁথিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল খান ছানাকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। শনিবার বিকেলে সাঁথিয়া থেকে তাকে আটক করা হয়।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা আসাদুজ্জামান বলেন, ঢাকার একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এমএম বিল্ডার্স অ্যান্ড কনষ্ট্রাকশনস্ লিমিটেড সাঁথিয়া বাইপাস সড়ক নির্মাণের কাজ করছে। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটির অভিযোগ, তাদের কাছে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল খান ছানা বেশ কিছু দিন ধরে বিপুল অংকের টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল। দাবিকৃত টাকা না দিলে কাজ বন্ধ করে দেওয়ার হুমকিসহ নানাভাবে সরকারি উন্নয়ন কাজে বাধা প্রদান করছিল। তার চাহিদা পূরণ না করায় শনিবার বিকেলে এমএম বির্ল্ডাস অ্যান্ড কনষ্ট্রাকশনস্ লিমিটেডের প্রজেক্ট ম্যানেজার প্রল্লাদ কুমারকে ব্যাপক মারপিট করেন। পরে পুলিশ খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই ছাত্রলীগ নেতাকে আটক করে।

ওসি জানান, এ ঘটনায় ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দিলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

হামলার শিকার প্রল্লাদ কুমার বলেন, ‘সাঁথিয়ায় কাজ শুরুর পর থেকেই ছানা মাঝে মাঝেই চাঁদা দাবি করে। তার দাবি পূরণ না করায় এর আগে কাজে অনিয়মের মিথ্যা অভিযোগ তুলে ভিডিও পোস্ট দেয়। এর আগেও সে জোরপূর্বক কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। শনিবার ছানা শত শত মানুষের সামনে প্রকাশ্যে আমাকে পিটিয়েছে।’ এ ব্যাপারে এম এম বির্ল্ডাস কর্তৃপক্ষ মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, সাঁথিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছানার বিরুদ্ধে ভূমিদখল, জলমহাল দখল, চাঁদাবাজি, টেণ্ডারবাজিসহ নানা অপকর্মের অভিযোগ রয়েছে। স্থানীয় সংসদ সদস্য সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকুর ঘনিষ্ঠ ও স্নেহভাজন পরিচয় দিয়ে এসব অপকর্ম করায় তার বিরুদ্ধে কেউ মুখ খোলার সাহস করে না বলে জানান স্থানীয়রা।