করোনার কারণে লেবু জাতীয় ফলের চাষের প্রতি চাষীদের এবার ঝোঁক বেশি থাকলেও দাম ভালো পাওয়া যাচ্ছে আনারসের। দেশে মৌসুমী ফল আনারসের চাহিদার যোগান বেশি আসে এই ফুলবাড়িয়া ও মধুপুর থেকে। তাই আনারসের মৌসুমগুলোতে প্রতিদিন ফুলবাড়িয়া -মধুপুর-ঘটাইল এই ৩টি উপজেলার শেষ সীমান্তবর্তী স্থানীয় গারোর বাজার এবং ফুলবাড়িয়ার বুড়ার বাজারে বসে বিশাল পাইকারি হাট। প্রতিদিনের হাটে বিক্রি হয় প্রায় কোটি টাকার আানারস। 

এছাড়াও মধুপুরের মোটের বাজার, জলছত্র বাজারসহ প্রত্যন্ত পাহাড়ি অঞ্চলের ছোট ছোট হাট বাজারে কমপক্ষে আরো ২ কোটি টাকার আনারস বিক্রি হয় বলে জানায় স্থানীয় চাষীরা। চাষীরা সাইকেল, ভ্যান, ভটভটি, নসিমন, ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা দিয়ে হাটে এনে বিক্রি করেন তাদের আনারস। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকাররা এসে কিনে নিয়ে যায় কৃষকের মিষ্টি মধুর এই ফল।

সরেজমিনে ফুলবাড়িয়া উপজেলার বুড়ার বাজার, বালুঘাট বাজার, মধুপুর উপজেলার গারোর বাজার, মোটের বাজার, জলছত্র বাজার ঘুরে দেখা যায়, ভোর থেকে দুপুর অব্দি চলে আনারস বেচা-কেনার ধুম। গারোর বাজারে আনারস বিক্রি করতে আসা স্থানীয় মহিষমারা ইউনিয়নের বাবুল মিয়া, কালাম, গফুর আলী ও ফুলবাড়িয়ার ফলচাষী আইয়ূব আলী বলেন, ‘করোনার সময় আমরা আনারসের দাম লইয়া ডরাইলেও অহন বাজার ভালা । খাঁচা ভইরা আনারস আর আনি মুঠ ভইরা টেকা লইয়া বাড়িত যাই।’

গারোর বাজারে দীর্ঘদিন ধরে পাইকারি আনারসের ব্যবসা করে আসা লোকমান হোসেন লিটন বলেন, বিশেষ করে ফুলবাড়িয়া, ঘাটাইল, মধুপুর উপজেলার আনারস এই গারোর বাজার বিক্রি করার জন্য চাষীরা নিয়ে আসেন। প্রতিদিন এই বাজারে ৬০ থেকে ৭০ লাখ টাকার আনারস বেচা-কেনা হয়।

লোকমান আরো জানান, কৃষক গত বছরের তুলনায় এবার আনারসের আবাদ বেশি করেছেন। তাই হাটেও পর্যাপ্ত পরিমাণে আনারস উঠছে। তবে যে আনারস গত বছর ২০ থেকে ২২ টাকা দাম ছিল এ বছর তা ৩০ থেকে ৩৫ টাকা করে। মধুপুরের মোটের বাজার এবং জলছত্র বাজার,ফুলবাড়িয়ার বুড়ার বাজার, বালুঘাট বাজারে আরো কয়েক কোটি টাকার আনারস বেচা-কেনা হয় প্রতিদিন।

ফুলবাড়িয়া এবং মধুপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, ফুলবাড়িয়ায় এবার ১২৮০ হেক্টর জমিতে এবং মধুপুর উপজেলায় প্রায় ৫ হাজার ৮৫০ হেক্টর জমিতে আনারসের আবাদ হয়েছে। 

মধুপুর উপজেলার কৃষি অফিসার মাহমুদুল হাসান বলেন, মধুপুরের মাটি আনারস চাষের জন্যে খুবই উর্বর। এই জনপদের শ্রমজীবী মানুষদের ভাগ্য বদলের হাতিয়ার হলো এই আনারস। এবার মধুপুরে আনারসের বাম্পার ফলন হওয়ায় পাশাপাশি চাষীরা দামও ভালো পাচ্ছে।

ফুলবাড়িয়া উপজেলার কৃষি অফিসার জেসমিন নাহার বলেন, ফুলবাড়িয়ায় করোনার প্রভাবে সবজির দাম নিয়ে কৃষক বিপাকে থাকলেও এবার আনারসের ভালো দাম পাচ্ছেন।