সিলেট সদর উপজেলায় রাতারগুলের মোটরঘাটে দু'পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে ১০ জনকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে খেয়াঘাটের ইজারা নিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে বিমানবন্দর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পুলিশ জানায়, দেশের একমাত্র জলাবন রাতারগুলে যেতে হলে সদর উপজেলার মোটরঘাটে গিয়ে নৌকা নিতে হয়। মঙ্গলবার খেয়াঘাটের নতুন ইজারাদারের পক্ষ ঘাটের দায়িত্ব নিতে গেলে পুরাতন ইজারাদারের সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়। এদের মধ্যে এওলারটুক গ্রামের আমির আলী, ইউসুফ আলী, আনা মিয়া, কয়েস আহমদ, বশির মিয়া ও চইলতাবাড়ি গ্রামের জাহাঙ্গীর মিয়া, দানা মিয়া, গিয়াস উদ্দিন, মনির মিয়া ও মকবুল হোসেনকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছে।

সিলেট মহানগর পুলিশের বিমানবন্দর থানার ওসি এসএম শাহাদৎ হোসেন জানান, সম্প্রতি জেলা প্রশাসন থেকে রাতারগুলের মোটরঘাট নতুন করে ইজারা দেওয়া হয়। মঙ্গলবার নতুন ইজারাদারকে খেয়াঘাট বুঝিয়ে দিতে যান জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের লোকজন। এ সময় পুরাতন ইজারাদার আরও কিছুদিন ঘাটের দায়িত্বে থাকতে চান। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দু'পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।