নাব্যটা সংকটের কারণে কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া নৌরুটে ১০ দিন ফেরি চলাচল বন্ধ থাকার পর আবারও ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। শুক্রবার বিকেল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ৩টি ফেরির মাধ্যমে যানবাহন পারাপার শুরু হয়।

জানা গেছে, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে বিআইডব্লিউটি-এর খননকৃত সকল চ্যানেল গত ২ সেপ্টেম্বর থেকে বন্ধ হয়ে যায় নাব্যতা সংকট ও ডুবোচরের কারণে। এর আগে দুর্ঘটনা এড়াতে এই রুটে সন্ধ্যার পর ফেরি বন্ধ রাখে বিআইডব্লিউটিসি কর্তৃপক্ষ। এই অবস্থার কারণে যাত্রীবাহী যানবহনের সংখ্যাও কমে যায় এই রুটে। এতে করে একদিকে সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে অন্য দিকে দুর্ভোগ বেড়েছে যাত্রীদের। তবে আজ শুক্রবার বিকেল ৪টা থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ফেরি চলাচল শুরু করে।

এ দিন পরীক্ষামূলকভাবে প্রথমে ফেরি বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর কাঁঠালবাড়ি ঘাটে পৌছায়। এর আগে ফেরিটি এই রুটে লৌহজং টার্নিং পয়েন্টে আটকে যায়। আধাঘন্টা পর ফেরিটি উদ্ধার করা হয়। এরপর ফেরি ক্যামেলিয়া সফলভাবে পার হয়ে যায়। এদিকে সন্ধ্যায় কে টাইপ ফেরি কাকলি পারপারের উদ্দেশ্যে কাঁঠালবাড়ি ঘাট ত্যাগ করেছে।

বিআইডব্লিউটিএ (ড্রেজিং বিভাগ) এর অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো. সাইদুর রহমান জানান, বর্ষা মৌসুমের শুরু থেকেই শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটের পদ্মা নদীতে তীব্র স্রোত ও নাব্যতা সংকট দেখা দেয়। গত কয়েকদিন ধরে পানি কমায় নৌ চ্যানেলের বিভিন্ন পয়েন্টে জেগে উঠছে ডুবোচর। ফলে আগেই বন্ধ হয়ে যায় ফেরি চলাচল। ১০ দিন বন্ধ থাকার পর শুক্রবার বিকেল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ফেরি চলাচল শুরু করেছে।