নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণ

নিহত মুয়াজ্জিনের পরিবারের পাশে অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   

কুমিল্লা সংবাদদাতা

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়ার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। দেলোয়ার হোসেন ভূঁইয়া ২৫ বছর ধরে ওই মসজিদে মুয়াজ্জিনের পাশাপাশি ওয়াক্তিয়া নামাজের ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। মন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে মুয়াজ্জিনের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে নগদ এক লাখ টাকা এবং তিনটি গাভি দেওয়া হয়েছে। 

বুধবার বিকেলে নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া ইউনিয়নের বদরপুর গ্রামে দেলোয়ারের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারকে মন্ত্রীর পক্ষে এ সহায়তা প্রদান করেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

দেলোয়ারের পরিবারে তার স্ত্রী, এক ছেলে ও তিন মেয়ে রয়েছে। মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ হয়ে মারা গেছেন তার বড় ছেলে জোনায়েদ হোসেনও।

সহায়তা প্রদানের সময় উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব কে এম সিংহ রতন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল হোসেন, পৌর মেয়র আব্দুল মালেক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউছুফ ভূঁইয়া, জেলা পরিষদ সদস্য আবু বক্কর সিদ্দিক আবু, ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান ভূঁইয়া বাছির, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবদুর রাজ্জাক সুমন প্রমুখ।

নিহত দেলোয়ারের শ্বশুর মাস্টার হাবিবুর রহমান বলেন, তার জামাতার বাড়িতে দোচালা টিনের ঘর ও ভিটেমাটি ছাড়া কিছু নেই। একই ঘটনায় বাবা-ছেলের মৃত্যুতে তার মেয়ের পরিবার অসহায় হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় অর্থমন্ত্রী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা সহায়তার হাত বাড়ানোয় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউছুফ ভূঁইয়া বলেন, নিহত হাফেজ দেলোয়ার হোসেন আমার এলাকার সন্তান। তার অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য অর্থমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।

গত ৪ সেপ্টেম্বর রাত পৌনে ৯টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকার বায়তুস সালাত জামে মসজিদে এশার নামাজের সময় গ্যাস বিস্ফোরণে অগ্নিকাণ্ড ঘটে। এতে মসজিদে থাকা সবাই দগ্ধ হন। তাদের মধ্যে অগ্নিদগ্ধ মসজিদের মুয়াজ্জিন হাফেজ মাওলানা দেলোয়ার হোসেন (৪৭) ও তার বড় ছেলে জোনায়েদ হোসেন (১৭) নিহত হন।