রাজশাহীতে নৌকাডুবিতে নিখোঁজ ২, মামলা

প্রকাশ: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০     আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   

 রাজশাহী ব্যুরো

রাজশাহীর পবা উপজেলার হারুপুরে পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ সাদিয়া ইসলাম সূচনা ও তার চাচাতো ভাই রিমনকে এখনো পাওয়া যায়নি। শুক্রবার বিকেল ৫টার দিকে ১৩ যাত্রী নিয়ে ইঞ্জিনচালিত একটি ছোট নৌকা ডুবে যায়। নৌকার ১১ জন যাত্রীকে জীবিত উদ্ধার করা গেলেও দুজন নিখোঁজ ছিলেন। শনিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত তাদের পাওয়া যায়নি।

নিখোঁজদের মধ্যে সাদিয়া ইসলাম সূচনা আমেরিকান ইন্টারন্যাল ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশর (এআইইউবি) বিবিএর ছাত্রী। তারা ঢাকায় বসবাস করতেন। রাজশাহীর খোলাবানা এলাকায় আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসেছিলেন তারা।

দুজন নিখোঁজের বিষয়টি নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, এখনো দুজনের খোঁজ মেলেনি। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল অভিযান অব্যাহত রেখেছে। ডুবে যাওয়া নৌকার স্থান চিহ্নিত করে এর আশপাশে অভিযান চলছে। নৌকাটিরও সন্ধান পাওয়া যায়নি। নদীর তীব্র স্রোতের কারণে কাজ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

নিখোঁজ দু'জন উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস অভিযান চালিয়ে যাবে বলেও জানান জাকির হোসেন।

এদিকে, এ ঘটনায় নগরীর দামকুড়া থানায় রাজশাহী নৌপুলিশের কন্সটেবল শরিফুল ইসলাম বাদি হয়ে শনিবার একটি মামলা দায়ের করেছেন। এতে নৌকার মালিক ইসা, মিলন ও মাঝি সুমনকে আসামি করা হয়েছে।  

বিষয়টি নিশ্চিত করে রাজশাহী মহানগর নৌপুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেহেদি মাসুদ বলেন, নদীতে নৌকা ভ্রমণে লাইফ জ্যাকেট বাধ্যতামূলক। কিন্তু ডুবে যাওয়া নৌকার কোনো যাত্রীর লাইফ জ্যাকেট পরানো ছিল না। অবহেলার জন্য  তিনজনের নামে মামলা করা হয়েছে।