চট্টগ্রামে স্বামীকে বেঁধে নববধূকে ধর্ষণ, ‘মূলহোতা’ গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ১১ অক্টোবর ২০২০     আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০২০   

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

গ্রেপ্তার মো. হান্নান -সমকাল

গ্রেপ্তার মো. হান্নান -সমকাল

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার কোলাগাঁও বড়ুয়াপাড়া এলাকায় স্বামীকে বেঁধে রেখে নববধূকে দলবেঁধে ধর্ষণের মামলার প্রধান আসামি মো. হান্নানকে (৩২) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭। তিনি ঘটনার মূলহোতা বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

রোববার দুপুরে র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের অপারেশন অফিসার মো. মাশকুর রহমান এ তথ্য জানান। দুপুর ১ টায় র‌্যাব-৭ হান্নানকে পটিয়া থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। পরে পুলিশ আদালতে পাঠালে আদালত হান্নানকে জেলে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

র‌্যাব-৭ চট্টগ্রামের অপারেশন অফিসার মো. মাশকুর রহমান জানান, ‘শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কর্ণফুলী উপজেলার কলেজ বাজার এলাকা থেকে চাঞ্চল্যকর নববধূ গণধর্ষন মামলার প্রধান আসামি হান্নানকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে মামলার ১নং আসামি ও ঘটনার অন্যতম মূলহোতা। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে অন্যান্য সহযোগীদের নিয়ে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। 

র‌্যাব কর্মকর্তা মাশফুকুর রহমান আরো জানান, এই মামলায় এজাহারনামীয় চারজনকেই গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭। 

এর আগে গত ৭ জুন পটিয়ার কোলাগাঁও বড়ুয়া পাড়া এলাকায় এক গৃহবধূকে চার যুবক মিলে ধর্ষণ করে। ১৫ জুন পটিয়া থানায় এ ঘটনায় মামলা করা হয়।

এজাহারে বলা হয়, ১৯ বছর বয়সী ওই নারী বিয়ের তিন দিন পর তার স্বামীর সঙ্গে পাশের বোয়ালখালী উপজেলায় শ্বশুর বাড়িতে যাচ্ছিলেন। পথে কোলাগাঁও বড়ুয়া পাড়া এলাকায় তার পূর্ব পরিচিতি চার যুবক স্বামীকে আটকে রেখে তাকে দলবেঁধে ধর্ষণ করে।

এদিকে ছায়া তদন্তে নেমে ধর্ষণের মামলাটির দুই আসামি মো. জুয়েল (২৮) ও মো. মিন্টুকে (৩৩) গত ১৭ জুন গভীর রাতে নগরীর পতেঙ্গা ও বাকলিয়া এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। এরপর গত ৯ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় নগরীর ইপিজেড থানাধীন সল্টগোলা এলাকায় অভিযান ঘটনার অন্যতম মূলহোতা মো. আবু তাহের মন্টুকে (৩০) গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।