কলারোয়ায় ফোর মার্ডার: নিহত শাহিনুরের ছোট ভাই গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ১৬ অক্টোবর ২০২০     আপডেট: ১৬ অক্টোবর ২০২০   

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি

গ্রেপ্তার রায়হানুল -সমকাল

গ্রেপ্তার রায়হানুল -সমকাল

সাতক্ষীরার কলারোয়ার একই পরিবারের ৪ জনকে হত্যার ঘটনায় নিহত শাহিনুরের ছোটভাই রায়হানুলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে গ্রেপ্তারের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানিয়ে শুক্রবার বিকেলে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়াও বৃহস্পতিবার জিজ্ঞাসাবদের জন্য আটক আব্দুর রাজ্জাক ও আসাদুলকে শুক্রবার বিকেলে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে শাহিনুর, তার স্ত্রী সাবিনা খাতুন, ছেলে ব্রজবক্স সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র সিয়াম হোসেন মাহি ও দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী মেয়ে তাসনিম সুলতানার লাশ শুক্রবার ভোরে ব্রজবাকসা গ্রামে শাহিনুরের মামা আবদুল কাদেরের পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে কলারোয়া থানায় অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা (নং-১৪) করেছেন শাহিনুরের শাশুড়ি কলারোয়ার ওফাপুর গ্রামের রাশেদ গাজির স্ত্রী ময়না বেগম।

অপরদিকে নিহতের মা আয়েশা খাতুন, বোন আছিয়া, ছোট ভাই রায়হানুল ইসলামের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী ফাহিমা বলেন, প্রতিবেশি আকবর আলীর সঙ্গে তাদের জমি নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ। তারা বিভিন্ন সময়ে শাহীনুর ও রায়হানুলকে হুমকি দিয়েছে। আকবরকে না ধরে পুলিশ রায়হানুলকে গ্রেপ্তার করেছে। তাকে বা তার পরিবারের কাউকে বাদি না করে পুলিশ শাহীনুরের শাশুড়িকে থানায় ডেকে এনে মামলা করিয়েছে।

রায়হানুলের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী ফাহিমা বলেন, বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে পুলিশ তাকে বাবার বাড়ি থেকে ডেকে কলারোয়া থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রাত ১২টার পর বাসায় রেখে যায়। এ সময় রায়হানুলের হাতে একটি কাটা দাগ নিয়ে প্রশ্ন করে।

কলারোয়া থানার ওসি (তদন্ত) হারান চন্দ্র পাল বলেন, চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার মামলাটির তদন্তভার সিআইডির হাতে গেলেও তাদের সহযোগিতা করতে পুলিশ কাজ করছে।

সাতক্ষীরার সিআইডি’র বিশেষ পুলিশ সুপার আনিচুর রহমান বলেন, শুক্রবার সিআইডি কলারোয়ার ফোর মার্ডার মামলার দায়িত্ব নেওয়ার পর তদন্ত শুরু হয়েছে। পরে একজনকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে তা এখনই প্রকাশ করা যাবে না।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার ভোরে কলারোয়ার হেলাতলা ইউপির খলিসা গ্রামে মাছের ঘের ব্যবসায়ী শাহিনুর ও তার স্ত্রী এবং দুই শিশু সন্তানকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। তবে ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায় তাদের ৫ মাস বয়সী শিশু কন্যা মারিয়া।