টাঙ্গাইলে ঘাটাইলে নেশার টাকা না দেওয়ায় বাবাকে কুপিয়ে মাথা বিচ্ছিন্ন করেছে হাসমত (৩৫) নামের এক যুবক। শনিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার ধলাপাড়া ইউনিয়নের হেংগারচালা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওই ব্যক্তির নাম ছোমেদ আলী (৬০)। এ ঘটনায় অভিযুক্ত হাসমতকে আটক করা হয়েছে।

প্রতিবেশী ও নিহতের পারিবার জানায়, ছোমেদ আলীর দুই ছেলে মধ্যে একজন বিদেশে থাকেন। আরেক ছেলে হাসমত বাবা-মায়ের সঙ্গে বাড়িতেই থাকেন। অভিযুক্ত  হাসমত এক কন্যা সন্তানের জনক।  ছেলেবেলা থেকেই তিনি নেশায় জড়িয়ে পড়েন।। অতিরিক্ত নেশা করার কারণে দুই বছর ধরে হাসমত পাগলের মতো আচরণ করেন। এ কারণে তাকে বাড়িতে শিকল দিয়ে বেঁধে রাখা হতো।

শনিবার রাতে হাসমত তার বাবার কাছে নেশা করার জন্য টাকা চায়। কিন্তু বাবা টাকা না দেওয়ায় হাসমত শিকল বাঁধা অবস্থায় খুঁটি উঠিয়ে ছুটে গিয়ে প্রথমে তার মা হাসনা বেগমকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করেন। এ সময় মা দৌড়ে ঘর থেকে বের হয়ে যান। কিছু বুঝে উঠার আগেই পাশে থাকা কোদাল নিয়ে হাসমত ঘুমন্ত বাবার ওপর আক্রমণ করেন। পরে তাকে কুপিয়ে দেহ থেকে মাথা আলাদা করে ফেলেন। পরে মায়ের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে হাসমতকে আটক করে। খবর পেয়ে রাত ১১ টার দিকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে এবং হাসমতকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে ঘাটাইল থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. ছাইফুল ইসলাম বলেন, বাবার কাছে ছেলে নেশা করার জন্য টাকা চেয়েছিল। না দেওয়ায় কুপিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তিনি জানান, এ ঘটনায় মামলা রুজু করা হয়েছে এবং লাশ ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।