শান্তি ভঙ্গের আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা ভাঙ্গায়

প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর ২০২০     আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২০   

ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি

শান্তি ভঙ্গের আশঙ্কায় ফরিদপুরের ভাঙ্গায় রোববার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি হয়। তবে অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটেনি।

বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রকিবুর রহমান খান সমকালকে এতথ্য জানান।

ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ফেসবুকের মাধ্যমে জেনেছি ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সনের সমর্থকরা ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে তার বিরুদ্ধে হওয়া মামলার প্রতিবাদে রোববার মানববন্ধন করতে চেয়েছিলন। পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ নামে একটি সংগঠন সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সনের বিরুদ্ধে একই স্থানে মানববন্ধনের জন্য আবেদন করে। এ পরিপ্রেক্ষিতে শান্তি ভঙ্গের আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়।

তিনি বলেন, ১৪৪ ধারার নির্ধারিত সময়ে কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন ছিল; তবে তা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজা বলেন, ফরিদপুর জেলা প্রশাসক অতুল সরকার মুক্তিযোদ্ধার সন্তান। ফরিদপুর-৪ আসনের সাংসদ নিক্সন চৌধুরী তাকে রাজাকার বলায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের পক্ষ থেকে মানববন্ধনের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়। প্রশাসন ১৪৪ ধারা জারি করায় আমরা আমাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছি। 

এমপি নিক্সন চৌধুরীর পক্ষের ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাহাদাত হোসেন বলেন, রোববার আমাদের কোনও মানববন্ধন কর্মসূচি ছিল না।

উল্লেখ্য, গত ১০ অক্টোবর চরভদ্রাসন উপজেলার চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে এমপি নিক্সন চৌধুরী চরভদ্রাসনের ইউএনও জেসমিন সুলতানাকে ফোন দিয়ে নির্বাচনের দায়িত্বরত ভাঙ্গার এসিল্যান্ড মুহাম্মদ আল-আমিনকে উদ্দেশ্য করে গালিগালাজের একটি ফোন আলাপের অডিও ভাইরাল হয়।

একইদিন ১০ অক্টোবর রাতে চরভদ্রাসনে এক সভায় এমপি নিক্সন চৌধুরী কর্তৃক ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকারকে হুমকি দেওয়ার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়।

এ অবস্থায় গত ১৫ অক্টোবর ফরিদপুর জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা বাদী হয়ে এমপি মজিবর রহমান চৌধুরী নিক্সনের বিরুদ্ধে চরভদ্রাসন থানায় একটি মামলা করেন।