ভালোবেসে পালিয়ে বিয়ের চারমাসের মাথায় লাশ হলেন চাঁদনী

প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০২০     আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০২০   

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

চাঁদনী

চাঁদনী

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে প্রেম করে পালিয়ে বিয়ে করার ৪ মাসের মাথায় চাঁদনী নামের এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের পূর্বগ্রাম এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বুধবার সকালে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ। চাঁদনী কুমিল্লার চান্দিনার মইছালের সামিমুল হক সোহেলের মেয়ে। তিনি পূর্বগ্রামে স্বামীর সঙ্গে ভাড়াবাসায় থাকতেন।

চাঁদনীর বাবা সামিমুল হক সোহেল জানান, তার মেয়ের সঙ্গে পূর্বগ্রাম এলাকার জাহাঙ্গীর মিয়ার ছেলে অনিক মিয়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দু'জনের বিয়েতে তাদের সম্মতি ছিল না। ৪ মাস আগে চাঁদনী-অনীক পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করে। বিয়ের পর মাসতিনেক তাদের সংসার ভালো চলে। একমাস ধরে চাঁদনীকে যৌতুকের জন্য অনীক ও তার পরিবারের লোকজন চাপ দিচ্ছিল। এজন্য প্রায়ই চাঁদনীকে মারধর করত অনীক। গত ২০ অক্টোবর যৌতুকের জন্য ফের তাকে চাপ দেয় অনীক। চাঁদনী এতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে মারধর করে।

ওইরাতে যৌতুকের জন্য মারধর করে চাঁদনীকে শ্বাসরোধে অনীক হত্যা করে বলে অভিযোগ করেন সামিমুল হক। তার অভিযোগ, চাঁদনীকে হত্যার পর সেটি আত্মহত্যা বলে প্রচার করা হয়। 

চাঁদনীর বাবা জানান, শ্বশুরবাড়ির লোকজন চাঁদনীকে হাসপাতাল ভর্তি করেই সেখান থেকে পালিয়ে যায়। অনীকও পলাতক রয়েছে। 

এ ঘটনায় চাঁদনীর বাবা বাদী হয়ে ৭ জনের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহমুদুল হাসান বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।