মুখে কাপড় ঢুকিয়ে কলেজছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ

প্রকাশ: ২২ অক্টোবর ২০২০   

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় এক কলেজছাত্রী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বুধবার সন্ধ্যার পর কলারোয়া উপজেলার জয়নগর ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। বর্তমানে ওই কলেজ ছাত্রী সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

নির্যাতিত ওই কলেজ ছাত্রী জানান, বুধবার দুপুরের পর তিনি কলারোয়া বাজারে যান বাড়ির নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কেনাকাটা করার জন্য। কেনাকাটা শেষে তিনি সন্ধ্যার পর জয়নগর ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামের বলফিল্ডের পাশের ইটের রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে তিন যুবক মোটরসাইকেল এসে তার গতিরোধ করে। তারা তাকে জোরপূর্বক সেখানকার একটি বাগানে নিয়ে যায়। এরপর তারা ওই ছাত্রীর মুখে কাপড় (স্কাফ) ঢুকিয়ে ও গলায় ছুরি ধরে ভয়ভীতি দেখিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করেন। এতে ওই তরুণী জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে রাতেই সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ওই ছাত্রীর মা অভিযোগ করে বলেন, ঘটনা শুনে তিনি ঘটনাস্থলে যাওয়ার পর স্থানীয় ইউপি সদস্য আমিরুল ধর্ষকদের পক্ষ নিয়ে তাকে মারধর করেন। তিনিও বর্তমানে সদর হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এ ঘটনায় যাতে মামলা না হয় সেজন্য ধর্ষকরা তাদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। 

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আলমগীর হোসেন জানান, হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ওই ছাত্রীর চিকিৎসা চলছে। বর্তমানে তিনি অনেকটা সুস্থ রয়েছেন। 

কলারোয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হারান চন্দ্র পাল জানান, এ ঘটনায় থানায় এখনও পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ দেননি। তবে তিনি এ রকম একটি ঘটনা শুনেছেন এবং তারা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলে তিনি জেনেছেন। 

পরিদর্শক (তদন্ত) হারান চন্দ্র পাল আরও জানান, তবে এর আগেও ওই তরুণী কয়েকজনের বিরুদ্ধে একই  অভিযোগ দিয়েছিলেন বলেও তিনি শুনেছেন। এ ঘটনায় অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।