কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার বনগ্রাম ইউনিযনের জামষাইট কান্দাপাড়া গ্রামের আসাদ মিয়া (৬০), তার স্ত্রী পারভীন খাতুন (৪০) ও ছেলে লিয়নের (১২) মাটিচাপা দেওয়া লাশ উদ্বার করেছে পুলিশ। তাদের হত্যা করে লাশ একসঙ্গে মাটিচাপা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন নিহত আসাদের বড় ছেলে।

পুলিশ জানায়, উপজেলার জামষাইট গ্রামের মির হোসেনের ছেলে আসাদ ও  স্ত্রী-ছেলেকে হত্যা করে লাশ বাড়ির পাশে মাটিচাপা দিয়ে রাখা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার সকালে আসাদের বড় ছেলে মোফাজ্জল তার বাবা-মা ও ভাইকে খুঁজে না পেয়ে থানায় জিডি করতে যান। পরে পুলিশ তদন্ত করতে এসে দেখে বাড়ির পাশে নতুন কবর। সেখানে একটু খোঁড়াখুড়ি করলে একটি ছোট ছেলের হাত পাওয়া যায়। পরে রাতে পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদের নেতৃত্বে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের লাশ উদ্বার করে  ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় পুলিশ। 

স্থানীয় সাবেক মেম্বার কামাল হোসেন বলেন, জমি নিয়ে ভাই বোনদের বিরোধ ছিলো। শনিবার এ ব্যাপারে সালিশ হওয়ার কথা ছিলো।

পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ জানান, নিখোঁজের সংবাদ পেয়ে আমরা তদন্ত শুরু করি। পরে বাড়ির পাশে মাটিচাপা দেওয়া তিনটি লাশ উদ্বার করা হয়েছে। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন চারজনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন নিহত আসাদের ছোট ভাই দীন ইসলাম, বোনজামাই ফজলুর রহমান, বোন তাসলিমা ও নাজমা।