নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়নের উত্তর কাজীপাড়া এলাকা থেকে নিখোঁজ অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিখোঁজের তিনদিন পর শুক্রবার সকালে রূপগঞ্জের ভুলতা পাওয়ার হাউজ সংলগ্ন গাবতলী এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়।

নিহত চালকের নাম মো. আলম। সে উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের উত্তর কাজীপাড়া গ্রামের আমিন মিয়ার ছেলে।

তালতলা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আহসান উল্লাহ জানান, গত মঙ্গলবার দুপুর ২টার দিকে মো. আলম তার ব্যাটারি চালিত অটোরিকশাটি যাত্রী পরিবহনের জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে সন্ধ্যার দিকে নিখোঁজ হন। নিখোঁজ হওয়ার পর তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুজির পর না পেয়ে বুধবার আলমের বাবা সোনারগাঁ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন। শুক্রবার সকালে রূপগঞ্জ উপজেলার ভুলতা পাওয়ার হাউজ এলাকায় রাস্তার পাশে একটি হাত-পা বাঁধা ও  চোখ উঠানো লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী। পরে কে বা কারা তার পরিবারকে লাশ পড়ে থাকার খবর দেয়। খবর পেয়ে আলমের পরিবার সেখানে গিয়ে আলমের লাশ নিশ্চিত করে। এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরো জানান, গত ২ মাস আগেও আড়াইহাজার উপজেলায় সোনারগাঁয়ের এক অটোরিকশা চালকের হাত-পা বাঁধা চোখ উঠানো অবস্থায় লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ কর্মকর্তা উল্লাহ বলেন, দু’টি লাশের হত্যা ও অটো ছিনতাইয়ে ঘটনা দেখে মনে হচ্ছে- একই চক্র কৌশলে অটো ভাড়া নিয়ে চালককে একই কায়দায় হত্যা করে অটোরিকশাটি ছিনতাই করে নিয়ে যাচ্ছে। চক্রটি সোনারগাঁয়ে প্রবেশ করে অটোগুলো ভাড়ায় নিয়ে যাচ্ছে, তাদের ধরতে আমরা কিছু কৌশল অবলম্বন করছি। আশা করি খুব শিগগিরই এ চক্রটিকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে পারবো।