মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বিষাক্ত পটকা মাছ খেয়ে দুই নারীর মৃত্যু হয়েছে, তারা সম্পর্কে বউ ও শাশুড়ি।

বুধবার রাতে উপজেলার উত্তর ভাড়াউড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল থেকে শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে।

মৃতেরা হলেন-সদর ইউনিয়নের উত্তর ভাড়াউড়া গ্রামের জয়নাল আবেদিনের স্ত্রী সাহিদা বেগম (৪০) ও তার পুত্রবধূ নুরুন্নাহার (২৯)। নিহত নুরুন্নাহারের ছেলে নাঈমকে (৯) গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। 

এ ঘটনায় রাতেই শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ) সার্কেল আশরাফুজ্জামান, শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুস ছালেক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ভানু লাল রায় জানান, বুধবার দুপুরে তাদের বাড়িতে এ মাছ রান্না হয়। মাছগুলো ওই পরিবারের ওই তিনজনই খেয়েছিলেন। জয়নাল মিয়া ও তার বড় ছেলে রুবেল মিয়া এ মাছ না খাওয়ায় তাদের কিছু হয়নি।

জয়নাল মিয়া জানান, বিকেল সাড়ে ৩টার পর দুপুরের ওই তিনজন পটকা মাছ খেয়েছিলেন। রাত ৮টার দিকে তাদের শরীরে জালাপোড়া শুরু হয়। এরপর রাত ১০টার দিকে বমি হয়। এর পরপরই মারা যান ওই দুইজন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরী বলেন, গতকাল রাতে আমরা খবর পেয়েছি, উত্তর ভাড়াউড়া গ্রামে দুইজন খাদ্যে বিষক্রিয়ায় মারা গেছেন আর এক শিশু হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।শিশুটি এখন শঙ্কামুক্ত। আমরা তার চিকিৎসা দিচ্ছি। 

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জ) সার্কেল আশরাফুজ্জামান বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।