জয়পুরহাট সদর উপজেলার পুরানপৈল রেলক্রসিংয়ে ট্রেন-বাস সংঘর্ষের ঘটনায় জেলা প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদন দাখিল করেছে। গত বুধবার রাতে জেলা প্রশাসকের কাছে প্রতিবেদন জমা দেয় তদন্ত কমিটি।

প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, দুর্ঘটনার সময় গেটের দায়িত্বে থাকা গেটম্যান নয়ন মিয়া তার দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেননি। গেট খোলা থাকার কারণে ট্রেনের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাসের সংঘর্ষে প্রাণহানি ও ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটেছে।

তদন্ত প্রতিবেদনে গেটম্যান নয়ন মিয়ার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনা রোধে প্রত্যেক গেটে অটো পদ্ধতির গেট নির্মাণের কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

গত শনিবার সকাল পৌনে ৭টার দিকে জয়পুরহাটের পুরানপৈল রেলক্রসিংয়ে উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গে যাত্রীবাহী বাঁধন নামের বাসের সংঘর্ষের ঘটনায় ১২ জন নিহত ও ৫ আহত হন। দুর্ঘটনার পরপরই তা অনুসন্ধান করতে বাংলাদেশ রেলওয়ে ও জয়পুরহাট জেলা প্রশাসন পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করে।

জেলা প্রশাসনের তদন্ত কমিটির প্রধান ছিলেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রেজা হাসান। তিনি বলেন, উত্তরা এক্সপ্রেস ট্রেনের লোকোমাস্টার, দুর্ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছি। পুরানপৈল রেলক্রসিংয়ের দায়িত্বে থাকা গেটম্যান নয়ন মিয়া তার দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনে অবহেলা করেছেন। সে কারণেই দুর্ঘটনা ঘটেছে। দোষী নয়ন মিয়াকে আইনের আওতায় আনাসহ ক্রসিং গেটে দুর্ঘটনা রোধে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।