ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

৩ যুবককে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ এসআইর বিরুদ্ধে

৩ যুবককে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর অভিযোগ এসআইর বিরুদ্ধে

কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে সংবাদ সম্মেলনে করেন ভুক্তভোগীরা। ছবি: সমকাল

চরফ্যাসন (ভোলা) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ১৪:২৬ | আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ১৪:৫১

ভোলার চরফ্যাসনে তিন যুবককে তুলে নিয়ে মাদক মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে পুলিশের দুই এসআইর বিরুদ্ধে। ৪২ দিন পর কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পেয়ে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা।

আমিনাবাদ ইউনিয়ন পরিষদে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মো. মনির, মুসফিকুল আলম ও মো. ইলিয়াছ জানান, ২৩ আগস্ট আমিনাবাদের মো. ফাহাদ দু’জনকে গাঁজাসহ ধরে পুলিশে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা হাতিয়ে নেন। পরে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে চরফ্যাসন থানার এসআই সিদ্দিকুর রহমান ও সাইফুল ইসলাম আমিনাবাদ ইউনিয়নের মাঝিরহাট বাজারের তহশিল অফিসের সামনে থেকে ফাহাদকে আটক করেন। তাঁর সঙ্গে সখ্য থাকায় ফাহাদকে ছেড়ে দিয়ে তারা একই এলাকা থেকে প্রথমে মুসফিকুল ও ইলিয়াছকে ধরে বিএড কলেজ এলাকায় নিয়ে যান। সেখানে ফাহাদের কাছ থেকে জব্দ গাঁজার ব্যাগ হাতে দিয়ে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ভয় দেখিয়ে এগুলো তাদের বলে স্বীকারোক্তি নেন। পরে ফরেস্ট অফিসসংলগ্ন সড়ক থেকে মনিরকে ধরে একই এলাকায় এনে স্বীকারোক্তির ভিডিও করা হয়। এরপর মামলা দিয়ে তিনজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। সাজানো মামলা থেকে অব্যাহতির দাবি জানিয়েছেন তারা।

জানতে চাইলে এসআই ছিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘মাদক পাওয়া গেছে বলেই মামলায় তাদের আসামি করা হয়েছে। কেউ কি নিজের অপরাধ স্বীকার করে? আসামিরাও অপকর্ম ঢাকতে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।’


আরও পড়ুন

×