ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

সেই ওয়ার্ড সচিব সাময়িক বরখাস্ত, তদন্তে কমিটি

সেই ওয়ার্ড সচিব সাময়িক বরখাস্ত, তদন্তে কমিটি

ওয়ার্ড সচিব মোতাহের হোসেন। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম ব্যুরো

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ১৪:৩০ | আপডেট: ১৭ অক্টোবর ২০২৩ | ১৪:৩২

পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের যৌন নিপীড়নের অভিযোগে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সেই ওয়ার্ড সচিবকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার বিরুদ্ধে উঠা যৌন নিপীড়ন ও ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ তদন্তে কমিটি গঠন করা হয়েছে। ভারপ্রাপ্ত প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল হাশেমকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে বরখাস্ত করা হয়। 

অভিযুক্ত ওয়ার্ড সচিব মোতাহের হোসেন সিটি করপোরেশনের ২০ নম্বর দেওয়ানবাজার ওয়ার্ড সচিবের দায়িত্বে ছিলেন। 

সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক আদেশে বলা হয়, মোতাহের হোসেনের বিরুদ্ধে দেওয়ানবাজার ওয়ার্ডে কর্মরত কয়েকজন সেবকের (পরিচ্ছন্নতাকর্মী) অভিযোগ এবং শৃঙ্খলা পরিপন্থী ও অনৈতিক কার্যকলাপে জড়িত থাকার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া গেছে। এ জন্য তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শেখ মুহম্মদ তৌহিদুল ইসলাম বলেন, মোতাহের হোসেনের বিরুদ্ধে উঠা সব অভিযোগ তদন্তে প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তাকে তদন্তকারী কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়েছে। তার প্রতিবেদনের সুপারিশ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 

গত ১১ অক্টোবর এ সংক্রান্ত একটি ভিডিও সমকালের হাতে আসে। এতে মোতাহের এক পরিচ্ছন্নতাকর্মীকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আপত্তিকর কাজে লিপ্ত হন। পরদিন দৈনিক সমকালে ‘ভয় দেখিয়ে যৌন নিপীড়ন করেন ওয়ার্ড সচিব’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। ওই দিন কয়েকজন পরিচ্ছন্নতাকর্মী সিটি করপোরেশনের মেয়র বরাবর অভিযোগ করেন।

অভিযোগে বলা হয়, মোতাহের হোসেন দীর্ঘদিন ধরে নারী ও পুরুষ পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের ভয়ভীতি দেখিয়ে যৌন নির্যাতন করে আসছেন। এছাড়া পরিচ্ছন্নতা সুপারভাইজারের ওয়ার্ডটিতে পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম পরিচালনার কথা থাকলেও মোতাহের হোসেন তা তদারকি করেন। কর্মস্থলে উপস্থিত থাকলেও মোতাহের হোসেনকে টাকা না দিলে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর করতে দেন না। কেউ নির্ধারিত সময়ের পরে এলে তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে যৌন নিপীড়ন করেন তিনি।

অভিযোগ প্রসঙ্গে মোতাহের হোসেন গত বুধবার সমকালকে বলেন, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের কাজের ব্যাপারে চাপাচাপি করায় তারা আমাকে ব্ল্যাকমেইল করেছে।

আরও পড়ুন

×