ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

এলাকায় অনুপস্থিতির সূত্র ধরে খুনি শনাক্ত

এলাকায় অনুপস্থিতির সূত্র ধরে খুনি শনাক্ত

গ্রেপ্তার আবদুর রহিম মণ্ডল। ছবি: সমকাল

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

প্রকাশ: ১৮ অক্টোবর ২০২৩ | ১৫:৩৩ | আপডেট: ১৮ অক্টোবর ২০২৩ | ১৫:৩৩

রাজবাড়ীতে ‘পাওনা’ টাকা ফেরত না দেওয়ায় ফাহিমা আক্তার নামে এক নারীকে খুন করা হয়। এ ঘটনায় আবদুর রহিম মণ্ডল নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়। মৃত ফাহিমা ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা উপজেলার তুজারপুর গ্রামের সেকেন ফকিরের মেয়ে। গ্রেপ্তার রহিম মণ্ডল পাংশা উপজেলার জাগিরকয়া গ্রামের বাসিন্দা। 

প্রেস ব্রিফিংয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম জানান, গত ৫ অক্টোবর কালুখালী উপজেলার কাওয়াখোলা গ্রামের একটি ধানক্ষেত থেকে অজ্ঞাতপরিচয়ের এক নারীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করে। কয়েক দিন পর স্থানীয়দের কাছ থেকে পুলিশ জানতে পারে, আবদুর রহিম মণ্ডল কয়েক দিন ধরে বাড়িতে নেই। তাঁর ফোন নাম্বার নিয়ে কললিস্ট সংগ্রহ করা হয়। 

কললিস্টে একটি নাম্বারে বেশ কয়েক বার যোগাযোগের তথ্য পায় পুলিশ। ওই নাম্বারের মালিকের সন্ধান করে নারীর পরিচয় শনাক্ত করা হয়। নিহত নারীর স্বজনের মাধ্যমে নিশ্চিত হয়ে সন্দেহভাজন হিসেবে আবদুর রহিম মণ্ডলকে আটক করা হয়। পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার কথা স্বীকার করেন রহিম। 

রহিম মণ্ডলের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, রহিম ও ফাহিমা কাতারে একসঙ্গে ছিলেন। ওই সময় ফাহিমা তাঁর কাছ থেকে দুই লাখ ১০ হাজার টাকা ধার নেন। পরে দু’জন দেশে ফিরে আসেন। তাদের মধ্যে যোগাযোগ ছিল। তবে ফাহিমা টাকা দিচ্ছিলেন না। এ কারণে ফাহিমাকে হত্যার পরিকল্পনা করেন রহিম। ৫ অক্টোবর ডেকে এনে ফাহিমাকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। পরিচয় লুকাতে ভ্যানিটিব্যাগ, মোবাইল ফোন, জাতীয় পরিচয়পত্র, জামাকাপড় লুকিয়ে ফেলেন তিনি। 



আরও পড়ুন

×