ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ফ্ল্যাট কিনে পুরো জমি দখলের পাঁয়তারা

ফ্ল্যাট কিনে পুরো জমি দখলের পাঁয়তারা

ফাইল ছবি

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৮ অক্টোবর ২০২৩ | ২৩:৩৪ | আপডেট: ২৯ অক্টোবর ২০২৩ | ০৬:৪৯

গাজীপুরের টঙ্গীতে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে পাঁচটি ফ্ল্যাট কিনে তিন কাঠা জমি দখলচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা শনিবার সাতাইশ সুখীনগর মাটিয়া এলাকার বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এমন তথ্য জানান। এ সময় তারা জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন বিআর‌টি প্রজে‌ক্টের ইকুইপ‌মেন্ট অপা‌রেটর কাজী মাজহারুল ইসলাম। তাঁর ভাষ্য, সুখীনগর এলাকার তিন কাঠা জমিতে বাবা কাজী আবদুল আলীমের মালিকানায় চারতলা ভবন রয়েছে। ২০১৬ সা‌লে আবদুল আলীম তাঁর দ্বিতীয় সংসা‌রের ছে‌লে কাজী ফারহান মামুন‌কে ভবনসহ জমি হেবামূ‌লে দান ক‌রেন। ২০১৮ সা‌লে মামুন সৎ পাঁচ ভাইবোন‌কে এক‌টি ক‌রে ফ্ল্যাট হেবামূলে দান করেন। বাবা‌কেও একইভাবে এক‌টি ফ্ল্যাট দেন। কিন্তু বাবা আবদুল আলীম ওই ফ্ল্যাটটি তৃতীয় স্ত্রী মাকসুদা সুলতানা‌কে হেবা ক‌রেন। সেটি প্রাইম ব্যাংকে বন্ধক রেখে ঋণ নেন। পরে সব ভাই মি‌লে ঋণ প‌রি‌শোধ ক‌রেন। ২০২২ সা‌লে আবদুল আলীম তাদের কাউকে না জানিয়ে ওই এলাকার আসিফুজ্জামানের কাছে সাব কবলা মূ‌ল্যে ফ্ল্যাট রে‌জি‌স্ট্রি ক‌রে দেন।

সেখানে বলা হয়, এর পর থেকে আসিফুজ্জামান দলবল দিয়ে জমিসহ পুরো বাড়ি দখলের চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এক বছর আগে সন্ত্রাসীরা মাজহারুল ইসলামকে তুলে নিয়ে জোর করে সাদা স্ট্যাম্পে সই নেয়। এ ঘটনায় আদালতে পৃথক মামলা হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে মাজহারুলের ভাই কাজী মোশারফ হোসেনসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এর পরপরই তাদের এলাকাছাড়া করার হুমকি দেয় দুর্বৃত্তরা। ভুক্তভোগীরা ৯৯৯-এ কল দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

টঙ্গী পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলম বলেন, বছরখানেক আগে ওই পরিবারের পক্ষে থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছিল। জমিসংক্রান্ত বিরোধ হওয়ায় তাদের আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেন। শনিবার হুমকির তথ্য পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এসব বিষয়ে আসিফুজ্জামানের ভাষ্য, কাজী আবদুল আলীমের কাছ থেকে তিনি সম্পত্তি কিনেছেন। তবে তাঁর ছেলেরা সন্ত্রাসী দিয়ে উচ্ছেদ বা হয়রানির যে অভিযোগ এনেছেন, তা ভিত্তিহীন।

আরও পড়ুন

×