ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

কুষ্টিয়া-১ আসনে নৌকা চান সাবেক এমপির তিন ছেলেসহ ১৭ জন

কুষ্টিয়া-১ আসনে নৌকা চান সাবেক এমপির তিন ছেলেসহ ১৭ জন

লোগো

কুষ্টিয়া ও দৌলতপুর প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৩ নভেম্বর ২০২৩ | ২২:৫৬

কুষ্টিয়া-১ (দৌলতপুর) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন ১৭ জন। তাদের মধ্যে বর্তমান ও সাবেক সংসদ সদস্য যেমন আছেন, তেমনি আছেন সাবেক এমপির তিন সন্তান, আইনজীবী, সাবেক আমলারাও। 

একাধিক ভাগে বিভক্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের বড় চ্যালেঞ্জ দলীয় কোন্দল মিটিয়ে সবাইকে এক প্ল্যাটফর্মে এনে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে ভোটে নামানো। এখান থেকে আওয়ামী লীগ থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনাও বেশ জোরালো।

নৌকার টিকিট পেতে মনোনয়ন ফরম নিয়েছেন বর্তমান সংসদ সদস্য ও দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আ ক ম সরওয়ার জাহান, সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন, সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত আফাজ উদ্দিন আহমেদের তিন ছেলেু নাজমুল হুদা, আরিফ আহমেদ ও এজাজ আহমেদ, সাবেক এমপি রেজাউল হক চৌধুরী ও তাঁর ভাই বুলবুল আহমেদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপকমিটির সদস্য মোফাজ্জেল হক, জেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপকমিটির সদস্য মাহমুদুল হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাসানুল আসকার, দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছাদিকুজ্জামান খান, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাসুদ করিম, অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত সচিব আনছার আলী খান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য তারিক আল মামুন, আবদুল জলিল এবং আহসান হাবিব।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বর্তমান এমপি সরওয়ার জাহানের সঙ্গে সাবেক এমপি রেজাউল হক চৌধুরীর পরিবারের দা-কুমড়া সম্পর্ক। সরওয়ার মনোনয়ন পেলে রেজাউল হক চৌধুরী স্বতন্ত্র নির্বাচন করতে পারেন বলে তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে।

রেজাউল হক চৌধুরী বলেন, ‘আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। শেষ পর্যন্ত দল আমাকে মূল্যায়ন করবে বলে আশা করছি। দল মনোনয়ন না দিলে কর্মী-সমর্থকরা যা চাইবেন তাই হবে।’

সাবেক এমপি আফাজ উদ্দিনের মৃত্যুর পর তিন ছেলে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন। পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরেই এবার তিন ছেলে মনোনয়ন কিনেছেন। জানতে চাইলে আফাজ উদ্দিনের এক ছেলে দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এজাজ আহমেদ মামুন বলেন, ‘বাবা আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা ছিলেন। আমাদের পরিবারের সবাই রাজনীতি করে। মনোনয়ন চাইতে পারে যে কেউ।’

বর্তমান এমপি সরওয়ার জাহান বলেন, ‘দলের সব পর্যায়ের নেতাকর্মী আমাকে চান। নেত্রী নৌকা প্রতীক আবারও দেবেন।’ এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দলের নেতারা মনোনয়ন চাইতে পারেন। এখানে গ্রুপিং বা দ্বন্দ্বের কোনো বিষয় নেই। নৌকা যে পাবে, সবাই তার পক্ষে মাঠে নামবে।’

আরও পড়ুন

×