ঢাকা বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

জামায়াত নিষিদ্ধ হয়েই গেছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী

জামায়াত নিষিদ্ধ হয়েই গেছে: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রী

সাংবাদকদের সঙ্গে কথা বলছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। ছবি: সমকাল

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশ: ২৪ নভেম্বর ২০২৩ | ২২:৪৫

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, হাইকোর্ট জামায়াতে ইসলামীর নিবন্ধন বাতিলের আদেশ দিয়েছিলেন। সর্বোচ্চ আদালতের আপিল বিভাগ সেই আদেশ বহাল রেখেছেন। ফলে জামায়াতে ইসলামী বাস্তবে নিষিদ্ধই হয়ে গেছে। সরকারের পক্ষ থেকে নতুন করে নিষিদ্ধ করার কোনো প্রয়োজন নেই।

নেত্রকোনা সফর শেষে শুক্রবার সকালে কিশোরগঞ্জের আলোচিত পাগলা মসজিদ পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। 

কিশোরগঞ্জে তাকে স্বাগত জানান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রুবেল মাহমুদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) নূরে আলম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আসাদ উল্লাহ ও পাগলা মসজিদের প্রশাসনিক কর্মকর্তা শওকত উদ্দিন ভূঁইয়া। পরে মন্ত্রী পাগলা মসজিদে দুই রাকাত নফল নামাজ পড়েন এবং মোনাজাতে অংশ নেন। 

পরে আ ক ম মোজাম্মেল হক সমকালকে বলেন, বিএনপিকে আমরা নির্বাচনে আসার জন্য আর অনুরোধ করব না, কোনো প্রয়োজন নেই। ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে লেখা সংবিধান, তা অব্যাহত থাকবে। বিএনপি চায় জিয়াউর রহমানের মতো ভিন্ন পথে ক্ষমতায় আসতে, যা এরশাদও করেছিলেন। এটা আর হবে না। নির্বাচন ছাড়া ক্ষমতায় যাওয়ার আর কোনো বৈধ পথ নেই।

বিএনপির স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ২০০৮ সালে তো স্বচ্ছ নির্বাচন হয়েছিল। তারা ২৯টি আসন পেয়েছিল। তারা রেজাল্ট দেখুক। কোন স্বচ্ছ নির্বাচনে তারা জয়লাভ করেছে? তাদের জন্মই হয়েছে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে, দেশের সম্পদ আর উচ্ছিষ্ট বিতরণ করে। তারা মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তির সঙ্গে মিলিত হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির মধ্যে বিভক্তি আছে। মুক্তিযুদ্ধের বিপক্ষের শক্তির মধ্যে বিভক্তি নেই, তারা এক।

আওয়ামী লীগের শরিক দলগুলোর সঙ্গে আসন ভাগাভাগি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসন ভাগাভাগির বিষয়ে কিছু অসন্তোষ তৈরি হতে পারে। নিজ দলের মধ্যেই অসন্তোষ হয়। তবে কোনো আসন দাবি করার ক্ষেত্রে শরিকদের দেখতে হবে এলাকায় তাদের প্রার্থীর গ্রহণযোগ্যতা কতটুকু। তার পরও একটি সমঝোতা অবশ্যই হবে।

আরও পড়ুন

×