ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

১০ নেতাকর্মী আহত, ব্যানার কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ

রংপুরে বাম জোটের মিছিলে লাঠিপেটার অভিযোগ

রংপুরে বাম জোটের মিছিলে লাঠিপেটার অভিযোগ

সংগৃহীত ছবি

রংপুর অফিস

প্রকাশ: ২৫ নভেম্বর ২০২৩ | ২২:৪৩

রংপুরে সরকারের পদত্যাগ ও নিরপেক্ষ তদারকি সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ চার দফা দাবিতে আয়োজিত বাম গণতান্ত্রিক জোটের বিক্ষোভ মিছিলে বাধা দিয়েছে পুলিশ। মিছিলের সামনে থেকে ব্যানার কেড়ে নিতে গেলে জোটের নেতাকর্মীর সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তি হয়। এ সময় তাদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিপেটা করে বলে অভিযোগ উঠেছে। এতে জোটের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

শনিবার সন্ধ্যায় নগরীর সুপার মার্কেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

তবে পুলিশ বলছে, বিনা অনুমতিতে বিশৃঙ্খলা তৈরির চেষ্টা করায় তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেওয়া হয়েছে। লাঠিপেটা করা হয়নি।

জোটের বাকি দাবিগুলো হলো– ঘোষিত একতরফা তপশিল বাতিল এবং দমন-পীড়ন, নির্যাতন বন্ধ করা। জানা যায়, চার দাবিতে কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার সন্ধ্যায় রংপুরে বাম গণতান্ত্রিক জোট বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি রংপুর প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে শুরু হয়ে সুপারমার্কেট অতিক্রম করার সময় পুলিশ বাধা দেয়। তাদের ব্যানার কেড়ে নেওয়া হয়। এ সময় জোটের নেতাকর্মীর সঙ্গে পুলিশ সদস্যদের ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ তাদের ওপর চড়াও হয়ে লাঠিপেটা করে। এতে জোটের নেতা বাসদ রংপুর জেলা আহ্বায়ক আবদুল কুদ্দুস, কমিউনিস্ট পার্টি রংপুর জেলা সভাপতি কাফি সরকার, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট রংপুর জেলা আহ্বায়ক সাজু বাসফোরসহ ১০ নেতাকর্মী আহত হন।

বাম গণতান্ত্রিক জোট ও বাসদ (মার্কসবাদী) রংপুর জেলা আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন বাবলু বলেন, আওয়ামী লীগ আবারও একতরফা কারচুপির নির্বাচনের দিকে যাচ্ছে। এ লক্ষ্যে এ তপশিল ঘোষণা করা হয়েছে। সব গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে তারা পেটোয়া বাহিনী ও পুলিশ দিয়ে দমন করছে।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন বলেন, তারা বিনা অনুমতিতে মিছিল বের করে বিশৃঙ্খলার চেষ্টা করছিল। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করে দেয়। মারধরের কোনো ঘটনা ঘটেনি। 

আরও পড়ুন

×