নীলফামারীর জলঢাকায় আগুনে প্রায় ৬০টি ঘর ছাই হয়ে গেছে। বুধবার রাত ১০ টার দিকে উপজেলার শিমুলবাড়ী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের উত্তর বেরুবন্দ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে জলঢাকা ও নীলফামারী সদর থেকে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট আড়াই ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

শিমুলবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান হামিদুল হক জানান, বুধবার রাতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ১৯টি পরিবার একেবারেই নিঃস্ব হয়ে গেছে। তিনি আরও বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের থাকার ঘর, গোয়ালঘর, রান্নাঘরসহ প্রায় ৬০টি ঘর পুড়ে গেছে। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এছাড়াও ৭টি পরিবার তাদের বসতভিটা ভেঙ্গে অন্যত্র সরিয়ে নিয়েছে বলে জানান চেয়ারম্যান হামিদুল হক।

ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল নীলফামারী সিনিয়র স্টেশন অফিসার শহিদুল ইসলাম জানান, একটি বাড়ির রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। তিনি বলেন, ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট আড়াই ঘন্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। রাতের হিসেবে আমরা ১৮টি পরিবারের ৩০/৩২টি ঘরের পুড়ে যাওয়ার তালিকা পেয়েছি। তবে এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

জলঢাকা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, আগুন লাগার খবর পেয়ে পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুব হাসান বলেন, রাতেই ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোর জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কম্বল ও শুকনো খাবারের ব্যবস্থা করেছি।