বিশিষ্ট সাংবাদিক, কলামিস্ট ও সমকালের উপসম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সাঈদ খানের বিরুদ্ধে অশালীন ও আপত্তিকর বক্তব্যের প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে। 

বৃহস্পতিবার ফরিদপুরের বীর মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক সমাজ এবং সমকাল সুহৃদ সমাবেশের পক্ষ থেকে পৃথকভাবে প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয়েছে।

পৃথক বিবৃতিতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বোয়ালমারী উপজেলার সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক আবদুর রশিদ, ডেপুটি কমান্ডার কে এম জহুরুল হক, সুহৃদ সমাবেশ ভাঙ্গা শাখার সভাপতি অধ্যাপক মিজানুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদুজ্জামান ওয়াহিদ, ভাঙ্গার কণ্ঠের সম্পাদক মজিবর মুন্সি, সাংবাদিক শাকিল আহমাদ, হাজি সাইফুল্লাহ শামিম, অজয় দাস, দিলীপ দাস, ওবায়দুল আলম সম্রাট, সৈয়দ নবাবজাদা, ছরোয়ার হোসেন, মো. মনিরুজ্জামান, মাসুম আল-ইসলাম, ওবায়দুর রহমান, তুরান রহমান, মাহামুদুল হাসান প্রমুখ ফরিদপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সামসুল হক ভোলা মাস্টারের কটূক্তির প্রতিবাদ জানান এবং তার শাস্তি দাবি করেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, আবু সাঈদ খান শুধু সমকালের উপসম্পাদক নন, তিনি ফরিদপুর তথা দেশের সূর্যসন্তান। জাতির বিবেক হিসেবে যারা এ প্রজন্মকে দিকনির্দেশনা দেন, তিনি তাদের অন্যতম। তার বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে। এ ছাড়া সদরপুর উপজেলার ১৯ বীর মুক্তিযোদ্ধা লিখিত বিবৃতিতে বলেন, আবু সাঈদ খানের সম্পর্কে মিথ্যা ও বানোয়াট বক্তব্য দিয়ে স্বনামধন্য একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার মানহানি করা হয়েছে। এ জন্য ভোলা মাস্টারের প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়া উচিত। দেশের প্রগতিশীল ধারার ও মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের অন্যতম প্রবক্তা বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু সাঈদ খানের বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্যকে দুঃখজনক ও অনভিপ্রেত আখ্যা দিয়ে এর নিন্দা জানিয়েছেন ফরিদপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলার গণমাধ্যমকর্মীরা। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন প্রথম আলোর জেলা প্রতিনিধি পান্না বালা, সমকালের হাসানউজ্জামান, চ্যানেল আইর শাহাদাত হোসেন তিতু, ইনডিপেনডেন্ট টিভি ও বিডিনিউজের শেখ মফিজুর রহমান শিপন, বৈশাখী টেলিভিশনের কে এম রুবেল, ইনকিলাব ও মাই টিভির নাজিম বকাউল, যমুনা টেলিভিশনের তরিকুল ইসলাম হিমেল, মোহনা টিভির আশীষ পোদ্দার বিমান, বাংলাদেশ সময়ের মঞ্জুয়ারা স্বপ্না, নগরকান্দা প্রেস ক্লাবের সভাপতি বোরহান আনিস, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, সহসভাপতি বেলায়েত হোসেন লিটন, শামসুল হুদা হুদু, মিজানুর রহমান, নিজাম নকীব, ফয়সাল হোসেন, শফিকুল ইসলাম খান জনি, মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।

এ ছাড়া আবু সাঈদ খানের বিরুদ্ধে কটূক্তির নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বোয়ালমারীর সাংবাদিক ও মুক্তিযোদ্ধারা। বোয়ালমারী বার্তা সম্পাদক অ্যাডভোকেট কোরবান আলী, সাপ্তাহিক চন্দনার সম্পাদক ও আমাদের নতুন সময়ের প্রতিনিধি কাজী হাসান ফিরোজ, সমকাল প্রতিনিধি কাজী আমিনুল ইসলাম, ভোরের কাগজ প্রতিনিধি কামরুল সিকদার, ঢাকা টাইমস প্রতিনিধি আমীর চারু বাবলু, আমাদের সময় প্রতিনিধি খান মোস্তাফিজুর রহমান, কালের কণ্ঠ প্রতিনিধি নুর ইসলাম, আমার সংবাদ প্রতিনিধি তৈয়বুর রহমান কিশোর, ভোরের ডাক প্রতিনিধি এ কে এম রেজাউল করিম, সকালের সময় প্রতিনিধি জাকির হোসেন, ঢাকার ডাক প্রতিনিধি এম এম জামান, পাক্ষিক নজীর বাংলার সম্পাদক সাইফুল্লাহ নজীর মামুন, নতুন দিন প্রতিনিধি ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ।

গত ৬ জানুয়ারি ফরিদপুরে কম্বল বিতরণের এক অনুষ্ঠানে আবু সাঈদ খানের বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্য ও কটূক্তি করে বক্তব্য দেন ভোলা মাস্টার।

মন্তব্য করুন