বরিশালে গোয়েন্দা পুলিশ গ্রেপ্তারের পর কারাগারে অসুস্থ হয়ে শিক্ষানবিশ আইনজীবী রেজাউল করিমের মৃত্যুর ঘটনায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। কারাগারে পুলিশের নির্যাতনে এই আইনজীবীর মৃত্যু হয়েছে অভিযোগ তুলে এর জন্য দায়ী পুলিশ সদস্যদের বিচার দাবি করেছেন স্বজনরা।

রেজাউল করিমের স্বজন এবং এলাকাবাসীর উদ্যোগে রোববার সকাল ১১টায় নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এ কর্মসূচি পালিত হয়। জেলা বাসদ ও গণসংহতি আন্দোলনের নেতাকর্মীরা একাত্মতা প্রকাশ করে মানববন্ধনে অংশ নেন।

রেজাউল করিমের বাবা ইউনুস মুন্সির সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন রেজাউলের স্ত্রী মারুফা বেগম, জেলা বাসদের সদস্য সচিব ডা. মনিষা চক্রবর্তী এবং সোনারগাঁও টেক্সটাইল শ্রমিক-কর্মচারী ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক প্রমুখ। বক্তারা রেজাউল করিম 'হত্যায়' জড়িত গোয়েন্দা পুলিশ সদস্যদের গ্রেপ্তার এবং বিচারের মাধ্যমে ফাঁসির দাবি জানান।

গত ২৯ ডিসেম্বর রাতে শিক্ষানবিশ আইনজীবী রেজাউল করিমকে নগরীর সাগরদী হামিদ খান সড়ক থেকে গ্রেপ্তার করেন গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক মহিউদ্দিন। ওই রাতেই মহিউদ্দিন বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন। পরদিন তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। ১ জানুয়ারি রাতে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন তিনি মারা যান।