যুক্তরাজ্যে ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির মধ্যে যেসব প্রবাসী দেশে ফিরছেন তাদের অধিকাংশই সিলেট অঞ্চলের বাসিন্দা। শীতকালে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত সিলেটের লোকজনের দেশে ফেরার সংখ্যা বছরের অন্য সময়ের তুলনায় বেশি হয়ে থাকে। 

কিন্তু এবার ঘটছে ব্যতিক্রম। দেশে এলে ১৪ দিন প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে- এমন ঘোষণায় সিলেটের যাত্রীসংখ্যা কমতে শুরু করে। তবে ১৫ জানুয়ারির পর ৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের সিদ্ধান্তের কারণে যুক্তরাজ্যে বসবাসরত সিলেটের লোকজনের দেশে ফেরার সংখ্যা বাড়ছে।

বৃহস্পতিবার লন্ডন থেকে ১৮০ জন যাত্রী নিয়ে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসে বাংলাদেশ বিমানের আরও একটি ফ্লাইট। এদের মধ্যে ১৫২ জনই সিলেটের। আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাদেরকে নির্দিষ্ট আবাসিক হোটেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিমানের তথ্যমতে, করোনাভাইরাসের প্রকোপের মধ্যে সর্বশেষ গত ২৪ ডিসেম্বর ১৬৫ জন, ২৮ ডিসেম্বর ১৪৪ জন, ৩১ ডিসেম্বর ২০২ জন, ৪ জানুয়ারি ৩৮ জন, ৭ জানুয়ারি ৩৪ জন, ১১ জানুয়ারি ৬০ জন, ১৪ জানুয়ারি ৪২ জন ও ১৮ জানুয়ারি ৬৭ যাত্রী যুক্তরাজ্য থেকে সিলেটে আসেন। কোয়ারেন্টাইনের সময় কমার কারণে যাত্রীসংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক হাফিজ আহমদ। 

তিনি জানান, সিলেটের বাইরের ২৮ জন যাত্রী নিয়ে বিমানটি ঢাকার উদ্দেশে ওসমানী বিমানবন্দর ত্যাগ করে।