পিরোজপুরের ভাণ্ডরিয়ায় মেয়েকে (১২) ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে বাবার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সোমবার রাতে শিশুটির মা ভান্ডারিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার পর পরই অভিযুক্ত ব্যক্তি (৫৫) পালিয়েছেন।

মমলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, রোববার মেয়েটির মা বোনের বাড়িতে বেড়াতে গেলে রাতে নিজের মেয়েকে নিয়ে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি  বসত ঘরের পিছনের ঘরে ঘুমাতে যান। পরে রাত ১০ টার দিকে মেয়েটিকে ঘুমন্ত অবস্থায় ধর্ষণের চেষ্টা চালান বাবা। এ সময় মেয়েটি বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে কৌশলে পাশের ঘরে ঘুমিয়ে থাকা ফুফুকে জাগিয়ে ঘটনাটি জানালে বাবা টের পেয়ে পালিয়ে যান। সোমবার মেয়েটির মা বাড়িতে এসে ঘটনাটি শুনে ওই রাতেই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ভুক্তভোগী মেয়েটির বড় বোন জানান, ইতিপূর্বে তাদের বাবা আরো একটি বিয়ে করেছিলেন। এ ঘটনায় বাবার কঠোর শাস্তির দাবিও জানান তিনি।

ভাণ্ডারিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।



মন্তব্য করুন