সারাদেশের মতো দিনাজপুরেও করোনাভাইরাসের টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে টিকা গ্রহণের মাধ্যমে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম।

রোববার সকাল ১১টার দিকে তিনি টিকা নেন। তিনি দিনাজপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালেও টিকা প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। 

হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী পরিকল্পনার কারণে বাংলাদেশ করোনা টিকা পেয়েছে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২৯টি দেশের জনগণ টিকা নিয়েছে, তাদের মধ্যে কোনো ধরনের সমস্যা দেখা যায়নি। প্রথম ধাপে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের করোনার টিকা দেওয়া হবে। এলাকার জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি করোনার টিকা নিয়ে আমার জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে চাই। 

তিনি বলেন, করোনার টিকা সম্পূর্ণ নিরাপদ। এই বিষয়ে কোনো ধরনের আশঙ্কা নেই। টিকা নিয়ে আমার কোনো অসুবিধা হচ্ছে না। আমি ভাল আছি, সুস্থ আছি। 

হুইপের পরে একে একে নিবন্ধিত ডাক্তার, নার্সসহ অনেকেই টিকা নেন। টিকা নেওয়ার জন্য নিবন্ধিত সাধারণ মানুষকেও অপেক্ষা করতে দেখা গেছে। 

এছাড়া দিনাজপুর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে টিকা নেন হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. পারভেজ সোহেল রানা, কাহারোলে দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল, বিরলে উপজেলা চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, বোচাগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছন্দা রানী পাল প্রমুখ।

জেলার সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, জেলায় মোট ১৪টি টিকাদান কেন্দ্র করা হয়েছে। এগুলোতে জেলায় পর্যায়ক্রমে সবাইকে টিকা দেওয়া হবে।