৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নার্সিং কাউন্সিলের পরীক্ষার স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারসহ তিন দফা দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন নার্সিং ও মিডওয়াইফারীর শিক্ষার্থীরা। রোববার দুপুরে নগরের প্রবর্তক মোড়ে সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেন তারা।

দাবি মানা না হলে এ সময় আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার হুঁশিয়ারিও দেন শিক্ষার্থীরা। তাদের উত্থাপিত অপর দু'টি দাবি হলো বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অন্তর্ভুক্ত ‘পেশেন্ট কেয়ার টেকনোলজি’ কোর্সকে নার্সিং কোর্সের সমমর্যাদায় অন্তর্ভুক্ত করা যাবে না এবং পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকাদের (এফডব্লিউবি) মিডওয়াইফসের পদমর্যাদা দেওয়া যাবে না।

বাংলাদেশ স্টুডেন্ট নার্সেস অ্যান্ড মিডওয়াইফস সম্মিলিত পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার আহ্বায়ক মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, যোগ্যতার পরিচয় দিয়েই নার্সিং ও মিডওয়াইফস শিক্ষার্থীরা এখানে পড়ালেখা করতে এসেছে। বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারী কাউন্সিল এবং কারিগরি পেশেন্ট কেয়ার টেকনোলজির মধ্যে কোর্স কারিকুলামেরও পার্থক্য রয়েছে।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের পুরো ৩ বছরে মোট ৩৩টি বিষয়ে পড়ালেখা করতে হয়। পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা এসএসসি পাস করে নামেমাত্র কয়েকটি বিষয়ে পড়ালেখা করে এবং ১৮ মাসে একটি কোর্স সম্পন্ন করে। যা কখনোই ডিপ্লোমা ইন মিডওয়াইফারী কোর্সের সমতুল্য নয়। এমন বৈষম্য আমরা কখনো মেনে নেব না। দ্রুত সময়ের মধ্যে দাবি মেনে না হলে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।