নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জার বিএনপির সঙ্গে আঁতাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা। তাদের অভিযোগ, পলাতক তারেক রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে কাদের মির্জার। যদিও কাদের মির্জা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতাদের বক্তব্য মিথ্যা ও গা বাঁচানোর চেষ্টা।

মঙ্গলবার সকালে ফেনীর একটি রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলনে ফেনীর আওয়ামী লীগ নেতারা এসব অভিযোগ করেন। এ সময় কাদের মির্জাকে উন্মাদ, মাতাল ও টেন্ডারবাজ বলেও আখ্যায়িত করেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সোনাগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন। উপস্থিত ছিলেন সোনাগাজী পৌরসভার মেয়র রফিকুল ইসলাম খোকন, ছাগলনাইয়া উপজেলা চেয়ারম্যান মেজবাউল হায়দার চৌধুরী, ফুলগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল আলীম প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলনের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন ফেনী পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী এবং দাগনভূঞা উপজেলা চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতন।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, আবদুল কাদের মির্জা আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মিথ্যাচার করে বেড়াচ্ছেন। এতে তার ভাই ওবায়দুল কাদেরসহ দলীয় নেতাদের ভাবমূর্তি চরমভাবে ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।

নেতারা অভিযোগ করেন, নির্বাচনে জেতার জন্য কাদের মির্জা বিএনপি-জামায়াতের সঙ্গে আঁতাত করে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার শুরু করেন। চিকিৎসার নামে যুক্তরাষ্ট্র গিয়ে তিনি বিএনপি নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। তারেক রহমানের সঙ্গেও টেলিফোনে যোগাযোগ করেছেন। সংবাদ সম্মেলন থেকে কাদের মির্জাকে গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়।

এ ব্যাপারে কাদের মির্জা বলেন, ‌আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতারা ঘরে ঢুকে গেছেন, হাইব্রিড নেতারা মাঠে থেকে টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি করছে। দলের এসব 'আগাছা'র বিরুদ্ধে কথা বলতে তিনি বাধ্য হয়েছেন। তিনি বলেন, ‘জনসমর্থনহীন এক শ্রেণির চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীদের কারণে জনপ্রিয় দল আওয়ামী লীগ প্রশ্নের সম্মুখীন হচ্ছে।’

কাদের মির্জার জিডি: প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে অভিযোগ এনে সোমবার রাতে কোম্পানীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন কাদের মির্জা। তিনি উল্লেখ করেছেন, নোয়াখালী ও ফেনীতে আওয়ামী লীগের অপরাজনীতি, নানা অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলায় রাজনৈতিক অপশক্তি বিভিন্নভাবে তাকে এবং তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার হুমকি দিচ্ছে। গতকাল কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহিদুল হক রনি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে হেফাজতের প্রতিবাদ সভা আজ :কোম্পানীগঞ্জে ওয়াজ মাহফিল থেকে দুই মাওলানাকে আটক করে পুলিশে দেওয়ার প্রতিবাদে বসুরহাট পৌরসভার মেয়রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভা করবে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। সংগঠনের নোয়াখালী জেলা শাখার উদ্যোগে বিকেল ৩টায় জেলা জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে এ সভা হবে। জেলা শাখা সভাপতি আল্লামা শিব্বির আহমদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ ছাড়া কাদের মির্জার বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচারের প্রতিবাদে গতকাল বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়েছে। মিছিল শেষে রূপালী চত্বরে সমাবেশে বক্তব্য দেন আবদুল কাদের মির্জা, খিজির হায়াত খান, নুর নবী চৌধুরী, আবুল খায়ের, আজম পাশা চৌধুরী রোমেল প্রমুখ। তারা কাদের মির্জার বিরুদ্ধে অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান।