ফেসবুকে আপত্তিকর কিছু ছবি ভাইরাল হওয়ার ক্ষোভে মাদারীপুরের শিবচরে এক স্কুলছাত্রীর বিষাক্ত দ্রব্য পানে আত্মহত্যার অভিযোগ উঠেছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রোববার হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে শিবচর থানায়।

এলাকাবাসী ও পারিবারিক সূত্র জানায়, শিবচর উপজেলার কাদিরপুর গ্রামের বখাটে যুবক রনি বেপারীর সঙ্গে একই উপজেলার পাঁচ্চর ইউনিয়নের বালাকান্দি গ্রামের দুবাই প্রবাসী দুলাল ফরাজির মেয়ে স্কুলছাত্রী লিপি আক্তারের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে ছেলে পক্ষের বিয়ের প্রস্তাব মেয়ে পক্ষ প্রত্যাখ্যান করে। তারপর থেকেই বখাটে ওই যুবক ভুয়া ফেসবুক আইডিতে মেয়েটির কিছু আপত্তিকর ছবি আপলোড করে। বেশকিছু ছবি ভাইরাল হয়। এতে ক্ষোভে গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়েটি ঘরে থাকা বিষাক্ত দ্রব্য পান করে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় তাকে প্রথমে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখান থেকে ফরিদপুর এবং পরে ঢাকা নেওয়ার পর রোববার সকালে সে মারা যায়। লিপি আক্তার পাঁচ্চর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণিতে পড়ত।

মৃতের চাচা ইউসুফ জানান, লিপি আক্তারের ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হওয়ায় গত দু'দিন আগে সে বিষাক্ত পদার্থ পান করে।

নিহতের মা হিরন বেগম বলেন, মেয়ের সঙ্গে ওই বখাটের পরিবার বিয়ের প্রস্তাব দেয়। সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় মেয়ের কিছু ছবি ফেসবুকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর সে লজ্জায় আত্মহত্যা করে। বখাটের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি।

শিবচর থানার এসআই রহমত আলী জানান, লিপি আক্তার গত শুক্রবার সন্ধ্যায় নিজের ঘরে থাকা বিষাক্ত দ্রব্য পান করায় মারা গেছে।