কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জে নববধূ রুবা হত্যা মামলায় দুই নারীসহ ৬ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে এক লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। কিশোরগঞ্জের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আ. রহিম সোমবার সকালে আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন। আসামিরা সবাই একই পরিবারের। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন -লুৎতু ওরফে রুকন (৩০), শরীফ (২২), সোহরাব (৪৫), মুসলিম (৫৫), নূর নাহার (৩৫) ও জোৎস্না (৪০)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, ২০১১ সালে করিমগঞ্জ উপজেলার দেহুন্দা ইউনিয়নের ভাটিয়া মোগলপাড়া গ্রামের মৃত আ. কদ্দুসের ছেলে শামীমের সঙ্গে একই গ্রামের আবু বকর সিদ্দিকের মেয়ে রুবার বিয়ে হয়। এ বিয়েতে শামীমের মত ছিল না। বিয়ের মাত্র ১৫ দিন পর একই বছরের ৩ জুন রাতে আসামিরা শ্বাসরোধ করে রুবাকে হত্যা করে বাড়ির পেছনের ডোবায় ফেলে রাখে। ওই রাতেই নিহতের লাশ উদ্ধার করে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।

এ ঘটনার পরদিন রুবার ভাই আলামিন বাদী হয়ে বোনের স্বামীসহ ৭ জনকে আসামি করে করিমগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) খন্দকার শওকত জাহান তদন্ত শেষে একই বছরের ৩০ ডিসেম্বর স্বামী শামীম ছাড়া অপর ৬ জনের নামে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। আদালত সাক্ষ্যপ্রমাণ শেষে সোমবার এ রায় ঘোষণা করেন।