চালক ইঞ্জিনের চাবি হারিয়ে ফেলেছিলেন। একারণে বিলম্বে গেল ট্রেনটি। এ ঘটনায় পশ্চিমাঞ্চল রেল বিভাগের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। 

সোমবার সিরাজগঞ্জ বাজার রেলওয়ে স্টেশন থেকে সকাল ৬টায় সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেন ঢাকার দিকে ছেড়ে যাবার কথা থাকলেও প্রায় ৩ ঘণ্টা পর সকাল ৯টার দিকে তা ছেড়ে যায়। চালক ট্রেনের চাবি হারিয়ে ফেলায় এমন ঘটনা ঘটে। এতে চরম বিরম্বনায় পড়েন যাত্রীরা। পরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকাগামী বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনে বিকল্প চাবি আসার পর ৯টার দিকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায় ট্রেনটি। আর চাবি হারিয়ে ফেললেও ইঞ্জিন বিকল হয়েছে বলে প্রচার চালান ট্রেনের চালক ও স্টেশন মাস্টারও। 

এ ঘটনায় পশ্চিমাঞ্চল রেল বিভাগ পাকশীর নির্দেশে সহকারী পরিবহন কর্মকর্তা (পাকশী) আব্দুস সোবহানকে আহ্বায়ক করে ৪ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সহকারী সংকেত প্রকৌশলী (পাকশী) কামরুল হাসান, সহকারী যন্ত্র প্রকৌশলী (লোক) ঈশ্বরদী ও সহকারী কমান্ড্যান্ট রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনী। কমিটিকে ৩ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। 

পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ে ম্যানেজার (ভারপ্রাপ্ত) শাওন কবির বিকেলে বলেন, সিরাজগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনের চাবি খোয়া যাওয়ার ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে বিষয়টি পরিস্কার করে বলা যাবে। 

তবে ট্রেনের পরিচালক আফজাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, ৬টার দিকে ইঞ্জিন চালাতে গিয়ে চালক রবিউল ইসলাম দেখেন চাবিটা নেই। পরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকাগামী বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনে বিকল্প চাবি আসার পর ৯টার দিকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায় ট্রেনটি। 

বিষয় : ট্রেন ট্রেনচালক ট্রেনের চালক

মন্তব্য করুন