আরজিনা (১৯) নামে পিতৃহীন এক তরুণী ওসির মানবিকতায় অবশেষে মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে আশ্রয় পেয়েছেন। তিনি নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলার মুগদা প্রকাশ মগুয়ার (মান্নানঘাট) মৃত আব্দুল মান্নানের মেয়ে।

সোমবার সুনামগঞ্জের তাহিরপুর থানার ওসি মো. আব্দুল লতিফ তরফদার এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, রোববার রাতেই পুলিশি নিরপত্তায় আরজিনাকে সিলেটের খাদিমনগরে সামাজিক মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

এরআগে রোববার উপজেলা সদরের রতশ্রী গ্রামে এক পথচারীকে দেখে আরজিনা কান্নাকাটি করে আশ্রয় চান। এরপর ওই পথচারী তরুণী নিয়ে থানায় যান। পরে বিস্তারিত জেনে পিতৃহীন তরুণীর বিষয়ে পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহসহ সুনামগঞ্জ সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালকের শরনাপন্ন হন ওসি নিজেই। এরপর তাদের পরামর্শ ও নির্দেশনায় ওই তরুণীকে মেয়েদের প্রশিক্ষণ ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে পৌঁছানো এবং সেখানে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করেন ওসি।

উপজেলা সদরের গোবিন্দশ্রী গ্রামের শাফায়েত উল্লাহ বলেন, তরুণীর কান্নাকাটি দেখে আমি তাকে নিয়ে থানায় ওসির শরনাপন্ন হই। এরপর ওসি মানবিক দিক বিবেচনায় সেই তরুণীকে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দেন।

ওসি মো. আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন, তরুণী নির্দিষ্টভাবে তার অভিভাবকের ঠিকানা দিতে পারেনি। তাকে আপাতত আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। পরে পরিবারের কেউ যদি যোগাযোগ করেন তখন তাকে তাদের হেফাজতে দেওয়া হবে। 

বিষয় : ওসি পুলিশ

মন্তব্য করুন