নোয়াখালীর সেনবাগে তাহমিনা আক্তার মিনা (৫৫) নামের এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যা করেছে তার স্বামী। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার কাবিলপুর ইউনিয়নে সাদেকপুর গ্রামের ওয়ালি বেপারী বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় নিহতের স্বামী আবদুর রব প্রকাশ বাবুল ড্রাইভারকে (৬০) আটক করেছে পুলিশ। পারিবারিক কলহের জরে ধরে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।

তাহমিনা আক্তার মিনা ও বাবুল দম্পতির দুই ছেলে রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাবুল দীর্ঘদিন সৌদি আরবে ছিলেন। ৫-৬মাস আগে দেশে আসার পর থেকে পারিবরিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্ত্রী মিনার সাথে তার বিরোধ চলছিল। মঙ্গলবার সকালে বাবুলের ঘরের ভিতর থেকে স্বামী-স্ত্রীর ঝগড়া শুনতে পায় বাড়ির লোকজন। এর কিছুক্ষণ পর তারা তাহমিনার চিৎকার শুনতে পান। পরে ঘরে গিয়ে বাথরুমে রত্তাক্ত অবস্থায় তাহমিনার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেয়। এ সময় বাবুলের হাতে রক্তমাখা একটি ছুরি ছিল।

সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) আবদুল বাতেন মৃধা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের স্বামী বাবুলকে আটক ও হত্যায় ব্যবহৃত ছুরিটি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।