কুমিল্লায় পৃথক অভিযানে ১১৮ কেজি গাঁজাসহ পাঁচজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এ সময় মাদক পরিবহনের কাজে ব্যবহৃত ছোট একটি কাভার্ডভ্যান জব্দ করা হয়েছে। 

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাদক ব্যবসায়ীরা স্বীকার করেছে, তারা কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গাঁজা এবং অন্যান্য মাদকদ্রব্য কেনাবেচা ও সরবরাহের সঙ্গে জড়িত ছিল।

গ্রেপ্তার ৫ জন হলেন- কক্সবাজার সদর উপজেলার কলাতলী চন্দ্রিমা মাঠ গ্রামের শাহ আলমের ছেলে মনসুর আলম, একই গ্রামের মৃত আলাউদ্দিনের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক, কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার টনকী গ্রামের কামাল মিয়ার ছেলে বাবলু, ব্রা‏হ্মণপাড়া উপজেলার নাগাইশ উত্তরপাড়া গ্রামের বিল্লাল হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান এবং একই উপজেলার বাগড়া গ্রামের মৃত নান্নু মিয়ার ছেলে ফারুক।

মঙ্গলবার বিকেলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১১, সিপিসি-২, কুমিল্লার কোম্পানী অধিনায়ক মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

তিনি জানান, র‌্যাব সদস্যরা সোমবার গভীর রাতে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকা এবং মঙ্গলবার সকালে সদর উপজেলার আলেখারচর বিশ্বরোড এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ওই মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করে। তাদের মধ্যে কাভার্ডভ্যানে করে পাচারকালে ৭৪ কেজি গাঁজাসহ বাবলু, মেহেদী হাসান ও ফারুককে গ্রেপ্তার করা হয়। আর কক্সবাজারের দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয় ৪৪ কেজি গাঁজাসহ।