ঘুরে ঘুরে ভিক্ষা চাওয়ার ছলে নারীদের স্পর্শকাতর স্থানে কৌশলে হাত দিয়ে স্পর্শ করতো সে। তরুণী ও মধ্যবয়সী নারীরা থাকতো তার টার্গেটে। সুযোগ পেলে চুরিও করতো। দীর্ঘদিন যাবত বরিশাল নগরীতে এ অপকর্মটি করে যাচ্ছিল এক ভবঘুরে।

এ রকম পরিস্থিতির শিকার একাধিক নারী সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে অভিযুক্ত ইব্রাহিম ফরাজির (৩০) ছবিসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তা চান।

এসব তথ্য পুলিশ কমিশনার মো. শাহাবুদ্দিন খানের নজরে এলে তার নির্দেশে মঙ্গলবার ইব্রাহিমকে গ্রেপ্তার করে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ।

দুপুরে ইব্রাহিমকে আদালতে পাঠানো হলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে। অভিযুক্ত ব্যক্তি পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার বোয়ালিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মো. নুরুল ইসলাম জানান, ইব্রাহিম ফরাজী পাগলের বেশ ধরে নারীদের উত্ত্যক্ত করলেও তার মূল পেশা চুরি করা। চুরির উদ্দেশে সে বিনোদন কেন্দ্র (পার্ক) ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিশেষ করে বিএম কলেজ ক্যাম্পাসে ঘোরাঘুরি করতো। সে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মেয়ে শিক্ষার্থীদের গা ঘেঁষে চলাসহ তাদের কাছাকাছি গিয়ে কৌশলে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিত।

তিনি জানান, সর্বশেষ সোমবার ব্রজমোহন কলেজ ক্যাম্পাসে অনার্স তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীর শরীরে হাত দিলে ইব্রাহীমকে ধাওয়া করে বের করে দেন শিক্ষার্থীরা। একই ধরনের আরও অনেক অভিযোগ পাওয়া গেছে তার বিরুদ্ধে।

ওসি জানান, মঙ্গলবার ইব্রাহীমকে আটক করার পর পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সে ছদ্মবেশ ধারণসহ নারীদের উত্ত্যক্ত করার কথা স্বীকার করেছে। একটি পুরনো চুরির মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বিষয় : ভবঘুরে গ্রেপ্তার বরিশাল

মন্তব্য করুন